পবিত্র কাবা শরিফের দিক বা প্রান্ত পরিচিতি

32

মুসলিম উম্মাহর কিবলা কাবা শরিফ। আর তা প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পছন্দের কাবা। আল্লাহ তাআলা উপহার স্বরূপ কাবা শরিফকে কিবলা হিসেবে প্রিয়নবিকে দান করেছেন।

হজ ও ওমরার জন্য আল্লাহ প্রেমিকগণ তাদের কিবলা বাইতুল্লাহয় উপস্থিত হয়। অনেকেই বাইতুল্লাহ’র দিক বা প্রান্ত বা কোণ পরিচিতি জানে না। মুসলিম উম্মাহর জন্য বাইতুল্লাহর প্রান্তসমূহের পরিচিতি তুলে ধরা হলো-

দক্ষিণ দিক
রুকনে ইয়ামেনি থেকে হাজরে আসওয়াদের কোন পর্যন্ত দক্ষিণ দিকে সীমাবদ্ধ। সে হিসেবে হাজরে আসওয়াদ দক্ষিণ পূর্ব কর্নারে অবস্থিত। আর রোকনে ইয়ামেনি কোন কাবা শরিফের দক্ষিণ-পশ্চিম কর্নার।

পূর্ব দিক
হাজারে আসওয়াদ থেকে শুরু করে হাতিমে কাবা পর্যন্ত। এ দিকটা রয়েছে পবিত্র কাবা শরিফের দরজা। সে হিসেবে হাতিমে কাবা-এর দিকটা পূর্ব দিক। হাতিমে কাবা শুরু হলো উত্তর পূর্ব কর্নার আর শেষ হলো উত্তর পশ্চিম কর্নারে।

উত্তর দিক
যে দিকটা হাতিমে কাবা দ্বারা ঘেরা। যার উত্তর পূর্ব কর্নারকে ইরাকি কোন বলা হয়।

পশ্চিম দিক
কাবা শরিফের দরজার ঠিক বিপরীত দিকই হলো পশ্চিম দিক। আর উত্তর পশ্চিম কর্নারকে শামি কোণে বলা হয়।

মাকামে ইবরাহিম কাবা শরিফের পূর্ব দিকে একটু দূরে অবস্থিত।

সাধারণত হাজরে আসওয়াদের কোণ ও রোকনে ইয়ামেনিকে একত্রে রোকনে ইয়েমেনি কোণ বলা হয়।

আর রোকনে শামি ও রোকনে ইরাকিকে একত্রে বলা হয় রোকনে শামি কোণ। শামি কোণ দুটি হাতিমে কাবার অন্তর্গত বিধায় তাওয়াফের সময় তা স্পর্শ করা যায় না। কারণ হাতিমে কাবা তাওয়াফের অন্তর্ভূক্ত।

আর ইয়ামেনি কোন দুটি উন্মুক্ত বিধায় তা স্পর্শ বা ইশারার কথা বলেছেন প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।

আল্লাহ তাআলা সমগ্র মুসলিম উম্মাহকে পবিত্র কাবা শরিফের দিক পরিচয় লাভ করার পাশাপাশি সঠিকভাবে বাইতুল্লাহ তাওয়াফের তাওফিক দান করুন। আমিন।

বিজনেস আওয়ার/এস আই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here