যেসব অভ্যাস ত্যাগ করা উচিত

46

আমাদের অনেকেরই অনেক ধরনের অভ্যাস আছে। কিছু অভ্যাস আছে যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী, আবার কিছু আছে যা আমাদের অজান্তেই শরীরের ক্ষতি করে চলেছে। অথচ সেদিকে আমাদের কোনো খেয়ালই নেই। ধীরে ধীরে এসব অভ্যাস শরীরের বড় ক্ষতির কারণ হতে পারে। এমন কিছু অভ্যাস আছে, যা আমরা কখনো গুরুত্বই দিই না। বরং আমাদের কাছে আরামদায়ক মনে হয়। এসব অভ্যাসও আমাদের শরীরের ক্ষতির কারণ হয়ে থাকে। আজ আমরা এই অভ্যাসগুলো দেখে নেব এবং চেষ্টা করব এসব থেকে নিজেদের রক্ষা করতে।

পায়ের ওপর পা তুলে বসা
অনেকেরই অভ্যাস আছে পায়ের ওপর পা তুলে বসা। এভাবে বেশিক্ষণ বসে থাকার অভ্যাস থাকলে উচ্চ রক্তচাপের আশঙ্কা ৭ শতাংশ বেড়ে যায়। যাদের এমন অভ্যাস আছে তা এখনই পরিহার করা উচিত।

তা না পারলে কখনো টানা ১৫ মিনিটের বেশি এভাবে বসা উচিত নয়। তা ছাড়া একটানা কোনোভাবেই ৪৫ মিনিটের বেশি বসে থাকা উচিত নয়। প্রয়োজনে আধাঘণ্টা অন্তর কিছু সময়ের জন্য হাঁটাহাঁটি করে আবার বসা উচিত।
উপুড় হয়ে শোয়া ভালো নয়

অনেকের ধারণা উপুড় হয়ে শুলে পেটের চর্বি কমে যায়। এমন ধারণা ভুল হলেও অনেকেই এ কারণে উপুড় হয়ে শুয়ে থাকে। চিত হয়ে না শুলে ঘাড়টা অস্বাভাবিক অবস্থায় চলে আসে, যে কারণে রক্ত সঞ্চালনে সমস্যা হতে পারে।

সব সময় চুইংগাম চাবানো ঠিক নয়
চুইংগাম চাবানোর অভ্যাস অনেকেরই আছে। তবে সব সময় এটি চাবানো ঠিক নয়। কেননা চুইংগাম যথেষ্ট মিষ্টি স্বাদের আর এটি দাঁতের জন্য ক্ষতিকারক। দাঁতের পাশাপাশি এটি চোয়ালের মাংসপেশির জন্যও ক্ষতির কারণ।

এক কাঁধে ব্যাগ বহন না করা
অনেকেরই অভ্যাস আছে সব সময়ই একই কাঁধে ব্যাগ নেওয়ার। এমন অভ্যাস মোটেও স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। কেননা এক কাঁধে বেশিক্ষণ ভার বহন করতে করতে ওই কাঁধের শিরা ভারসাম্য হারিয়ে ফেলতে পারে। যে কারণে একটা সময় ওই কাঁধে ব্যথা হতে পারে। এ কারণে সব সময় একই কাঁধে নয়, মাঝে মাঝেই ব্যাগ এক কাঁধ থেকে অন্য কাঁধে নেওয়া উচিত। এতে কাঁধের অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যথা থেকে মুক্ত থাকা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here