ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮, ৮ আষাঢ় ১৪২৫


চুয়াডাঙ্গায় নকল ওরস্যালাইন ও কোমল পানীয় কারখানার সন্ধান

২০১৮ জুন ০৪ ১০:৪৬:০৯

বিজনেস আওয়ার (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিবেদকঃ চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর বাস স্ট্যান্ডের পাশে একটি মাঠের ভেতর নির্জন এলাকায় 'এমএস ফুড প্রোডাক্টস্' ও 'আরএমকে ফুড প্রোডাক্টস্' নামের একটি নকল ওরস্যালাইন এবং সফট ড্রিংক্স পাউডার কারখানার সন্ধান পেয়েছে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থ্যা (এনএসআই)।

রবিবার দুপুর ২ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থ্যার সদস্যরা যৌথভাবে অবৈধ কারখানায় উপস্থিত হয়ে সেখানে নকল ওরস্যালাইন এবং সফট ড্রিংক্স পাউডার তৈরির বিষয়টি দেখতে পায়।

কারখানা থেকে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ২৫ লাখ টাকা দামের ৪০হাজার প্যাকেট ওরস্যালাইন, টেস্টি স্যালাইন, অরেঞ্জ সফট ড্রিংক্স পাউডার, ডাব সফট ড্রিংক্স পাউডার, সফট ড্রিংক্স পাউডার তৈরির সরঞ্জাম ও কেমিক্যাল জব্দ করা হয় এবং সফট ড্রিংক্স পাউডার তৈরির দুটি মেশিন, একটি ক্রাশ মেশিন, একটি বিলিন্ডার, একটি প্যাকেজিং মেশিন সিলগালা করে দেয়া হয়।

এরপর চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ম্যাজিস্ট্রেট পাপিয়া আক্তার ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার গোকুলখালী ও বর্তমান ঠিকানা বড়দুধপাতিলা গ্রামের মরহুম জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে ওই অবৈধ কারখানার মালিক জহুরুল ইসলাম মঞ্জুকে (৫০) ২লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক সহকারী কমিশনার পাপিয়া আক্তার জানান, দামুড়হুদার লোকনাথপুর বাস স্ট্যান্ডের পাশে একটি মাঠের ভেতর নির্জন এলাকায় জনৈক জহুরুল ইসলাম মঞ্জু এমএস ফুড প্রডাক্টস ও আরএমকে ফুড প্রোডাক্টস্ নামে একটি নকল সফট ড্রিংক্স পাউডার এবং ওরস্যালাইন তৈরির অবৈধ কারখানা গড়ে তোলে।

দীর্ঘদিন ধরে ওই কারখানায় উৎপাদিত হুবহু এসএমসির আদলে তৈরি মোড়কে ওরস্যালাইন, নিউ টেস্টি স্যালাইন, অরেঞ্জ সফট ড্রিংক্স পউডার ও ডাব সফট ড্রিংক্স পাউডার বাজারজাত করে আসছিল। যার কোনো অনুমোদন নেই।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় চুয়াডাঙ্গা জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার উপ-পরিচালক আবু জাফর ইকবাল, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খন্দকার ফরহাদ আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থ্যার সহকারী পরিচালক তপু কুমার ভৌমিক ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ।

বিজনেস আওয়ার/০৪জুন/এআরডি/এমএএস

উপরে