ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ৩ কার্তিক ১৪২৫

ss-steel-businesshour24
Runner-businesshour24

ট্রাম্প-কিমের 'গুরুত্বপূর্ণ নথি' স্বাক্ষর

২০১৮ জুন ১২ ১৩:০৩:৫৬

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয়ার নেতা কিম জং উন পারস্পরিক সমঝোতার এক গুরুত্বপূর্ণ নথিতে স্বাক্ষর করছেন। তবে এর বিস্তারিত এখনও জানানো হয়নি।

প্রথম পর্বের একান্ত বৈঠকের পর ট্রাম্প নিজেই সাংবাদিকদের ঐতিহাসিক সমঝোতার আভাস দিয়েছিলেন। সিএনএন প্রথমে সেই সমঝোতামূলক নথি স্বাক্ষরের খবর জানায়। পরে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম খবরটি নিশ্চিত করে।

১২ জুন, মঙ্গলবার সকালে কিমের সঙ্গে ৩৫ মিনিটের একান্ত বৈঠক শেষে ট্রাম্প সাংবাদিকদের জানান, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে একটি চুক্তির দ্বারপ্রান্তে অবস্থান করছে তার দেশ। ঐতিহাসিক বৈঠকের সাফল্য ও উন্নতিকে ধরে রাখতেই দুই নেতা এই চুক্তি স্বাক্ষর করতে যাচ্ছেন বলে জানান একজন মার্কিন কর্মকর্তাও।

সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, প্রেসিডেন্টে আগে তিনি এই চুক্তির বিস্তারিত কিছু বলতে চাচ্ছেন না। কিছুক্ষণ বাদে অপেক্ষারত সাংবাদিকদের সামনে হাজির হয়ে ট্রাম্প বলেন, আমরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ সমঝোতায় স্বাক্ষর করেছি। এর মধ্যে বিস্তারিত অনেক কিছুই আছে। সংবাদ সম্মেলনে চুক্তির বিস্তারিত প্রকাশ করা হবে।

সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপে ক্যাপেলে হোটেলে স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টা) একান্ত বৈঠকে বসেন দুই নেতা। সকালে বৈঠকের শুরুতে দুই দেশের পতাকার সামনে দাঁড়িয়ে হাত মেলান ট্রাম্প-কিম। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, ১২ সেকেন্ড ধরে হ্যান্ডশেক করেন তারা।

কিমই প্রথম এসে ট্রাম্পের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। বৈঠক শেষে ট্রাম্প বলেন, দারুণ বৈঠক হয়েছে। দুর্দান্ত সম্পর্কের সূচনা ঘটতে যাচ্ছে। দিনের শুরুতে এমন চুক্তি স্বাক্ষরের কোনও পরিকল্পনা ছিল না। তবে মধ্যাহ্নভোজের আগে একটি দীর্ঘসময় বিরতির উল্লেখ ছিল। দুপুরের দিকেই হঠাৎ করে চুক্তি স্বাক্ষরের ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

বৈঠক শুরুর আগে থেকেই ট্রাম্প বলেছিলেন,এটা দুর্দান্ত বৈঠক হবে। আর কিম বলেন, এমন অবস্থায় আসা সহজ ছিলো না। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, শান্তি জন্য বড় এক ঘটনা ছিল আজকের দিনটি। দুই নেতার একান্ত বৈঠকের পর এখন দ্বিতীয় পর্বের বৈঠকে তাদের সঙ্গে মিলিত হন দুই দেশের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

বৈঠক নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন এর আয়োজনে মূল ভূমিকা পালনকারী দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইন। মুন বলেছেন, গত রাতে ঘুমাতে পারিনি। কেবিনেটের এক বৈঠকে মুন বলেন, আশা করি, বৈঠক সফল হবে এবং নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা হবে।

এর আগে সব জল্পনা-কল্পনা ও অনিশ্চয়তার অবসান ঘটিয়ে সেন্টাসা দ্বীপে বৈঠক শুরু করেন ‍দুই নেতা। প্রথমেই দুই দেশের পতাকার সামনে দাঁড়িয়ে হাত মেলান ট্রাম্প-কিম। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, বৈঠক শুরুর আগে ১২ সেকেন্ড সময় ধরে করমর্দন করেন তারা।

বিজনেস আওয়ার/১২জুন/এমএএস

উপরে