ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৫


নতুন টাকার বাজার জমে উঠেছে

২০১৮ জুন ১৩ ১৬:৩৩:৫৮

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: সারি সারি দুই, পাঁচ, ১০, ২০, ৫০ আর ১০০ টাকার কচকচা নোট। তবে এতগুলো নতুন টাকার ভিড়ে হঠাৎ করেই ৪০, ৬০ অথবা ৭০ টাকার নোট দেখে যে কারো চক্ষু চড়কগাছ হতেই পারে!

তেমনই ধাঁধাঁয় পড়েছিলেন নতুন টাকা কিনতে আসা শাকিলুর রহমান। গ্রামে থাকলেও কাজের সুবাদে ঢাকায় এসে গুলিস্তানে কিনতে এসেছিলেন নতুন টাকা। উদ্দেশ্য পরিবারের সদস্যদের নতুন টাকায় ঈদ সেলামি দেওয়া।

কিন্তু ৪০, ৬০ অথবা ৭০ টাকার অপরিচিত নোটগুলো দেখে তিনি বেশ হতবাক হয়েই জিজ্ঞেস করলেন বিক্রেতাকে, এগুলো কি সরকার নতুন ছেড়েছে ভাই? একটু মুচকি হাসলেন বিক্রেতা নজরুল।

তারপর বুঝিয়ে বললেন, এগুলো সাধারণ টাকা না, বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত স্মারক নোট। আর ৪০, ৬০ অথবা ৭০ টাকার এ স্মারক নোটগুলো কিনতে প্রতিটির জন্য খরচ হবে ৫ থেকে ১০ টাকা।

রাজধানীর গুলিস্তানে ঈদ উপলক্ষে এখন বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছে নতুন টাকার বাজার। গুলিস্তান পাতাল মার্কেটের কাছে বড় বড় ছাতার ছায়াতলে চেয়ার টেবিল নিয়ে বসেছেন নতুন টাকার বিক্রেতারা।

ঈদের আনন্দে সবসময়ই বাড়তি মাত্রা যোগ করে সেলামির নতুন টাকা। তাইতো লাইনে দাঁড়িয়ে নতুন টাকা সংগ্রহ করতে ভিড় দেখা গেছে সাধারণ মানুষের। সালামি ছাড়াও দান-খয়রাতের জন্যও নতুন টাকা দেওয়ার কথা জানালেন অনেকে।

নতুন টাকার ক্রেতা ফয়সাল আহমেদ বলেন, ঈদ মানেই আনন্দ। তবে বড়দের চেয়ে ঈদে ছোটদের মধ্যেই উৎসাহ-উদ্দীপনা খানিকটা বেশি থাকে। তাদের জন্য তো সেলামি প্রায় বাধ্যতামূলক। আর নতুন টাকায় সেলামি দিলে তাদের আনন্দটা যেনো আরো বেশি বেড়ে যায়।

বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক টাকার নতুন নোট বাজারে ছাড়ে। সেখান থেকেই টাকা সংগ্রহ করে তারা বিক্রি করেন খুচরা ও পাইকারি হিসেবে। এছাড়া নতুন নতুন নোটের প্রতি সবারই কমবেশি আগ্রহ থাকে নোটের পাশাপাশি পাওয়া যাবে বিভিন্ন বিদেশি মুদ্রার নোটও।

জানা গেছে, রোজার ঈদ উপলক্ষে এবার ৩০ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট বাজারে ছেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এসব নতুন টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকসহ রাজধানীর সরকারি-বেসরকারি ২০টি ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায় পাওয়া যাবে।

অন্যবারের তুলনায় এবার বাংলাদেশ ব্যাংক বেশি নোট ছেড়েছে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা। এ প্রসঙ্গে বিক্রেতা মোবারক হোসেন জানান, এবার ব্যাবসা বেশি ভালো না। ব্যাংক অনেক বেশি নতুন নোট ছেড়েছে। ফলে এবার একদমই দাম পাওয়া যাচ্ছে না।

এবার দুই টাকা, পাঁচ টাকা, ১০ টাকা, ২০ টাকা, ৫০ আর ১০০ টাকার নতুন নোট কিনতে প্রতি হাজারে অতিরিক্ত খরচ হবে ৬০ থেকে ১২০ টাকা পর্যন্ত। তবুও টাটকা কচকচে নোট দিয়ে শিশুদের সীমাহীন আনন্দ এনে দিতে বড়দেরও যেন চেষ্টার কমতি নেই। কেননা তাদের কাছে টাকার মানের চেয়ে ‘নতুনের আহ্বানটাই’ বেশি।

বিজনেস আওয়ার/১৩জুন/এমএএস

উপরে