ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫


এবার অতিরিক্ত হজ ফ্লাইটের সুযোগ নেই

২০১৮ জুলাই ০৭ ১৪:৩৭:২১

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্সের কোনো হজ ফ্লাইট বাতিল হয় তাহলে এবার অতিরিক্ত ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ দেবে না সৌদি সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থায় সৌদি আরবে বাড়ি বাড়া ও মুয়াল্লেম নিয়োগসহ সব প্রক্রিয়া যথা সময়ে সম্পন্ন করার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ বিমান।

অন্যথায় যাত্রীর অভাবে ফ্লাইট বাতিল হলে বিমান যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হবে, তেমনি অনিশ্চয়তায় পড়বে হজ যাত্রা। তবে প্রস্তুতি ভালো থাকায় এবার ফ্লাইট বাতিলের কোনো ঘটনা ঘটবে না বলে প্রত্যাশা ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাবের।

আগামী ১৪ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে হজ ফ্লাইট। ধর্ম মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ বিমান ও হজ এজেন্টদের সংগঠন- হাবসহ সব পক্ষের প্রচেষ্টার পরেও প্রতিবছরই বিড়ম্বনায় পড়তে হয় হজ গমনেচ্ছুদের। গেল বছরও নানা সমস্যায় যাত্রী সংকটে বাতিল হয় বিমানের ২৪টি হজ ফ্লাইট।

যদিও পরে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বাড়তি ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ দেয় সৌদি সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। তবে, এবার সংস্থাটি জানিয়ে দিয়েছে কোনো ফ্লাইট বাতিল হলে অতিরিক্ত কোনো স্লট দেয়া হবে না।

এ বিষয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ বলেন, এবছর বাড়তি স্লটের সুযোগ না থাকায় আমাদের শুরু থেকেই সচেতন হতে হবে। এজন্য সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

হাবের অভিযোগ, বাড়িভাড়া, মোয়াল্লেম নিয়োগের ফি-সহ যাবতীয় প্রক্রিয়ার জন্য সৌদি আরবে নির্দিষ্ট একাউন্টে অর্থ পাঠাতে দেরি করেছে কয়েকটি ব্যাংক। যে কারণে এখনো বাড়ি ভাড়া করতে পারেনি কিছু এজেন্সি। এর বাইরে, অন্য সব প্রস্তুতি ভালো।

হাব’র মহাসচিব শাহাদাত হোসেন তসলিম বলেন, বাংলাদেশের অনেক ব্যাংক সৌদি আরবে টাকা পাঠাতে দেরি করেছে। এরপরও এজেন্সিগুলো ক্ষতি মেনে সকল কাজ শেষ করার চেষ্টা করছে।

এরই মধ্যে বিমানের ৬০ ভাগ টিকেট বিক্রি হয়েছে। শুরু হয়েছে ভিসা দেয়াও। এবার বিমানের টিকেট আগে কাটার নিয়ম করায় কোনো যাত্রী সংকট হবে না বলে প্রত্যাশা হজ অফিসের।

হজ অফিসের উপ-পরিচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, এরই মধ্যে বাংলাদেশ বিমানের প্রায় ৪০-৫০ হাজারের মতো টিকেট বিক্রি হয়েছে। এটা এজেন্সিগুলোর তৎপরতার একটি উল্লেখযোগ্য উদাহরণ। গত বছরের ঘটনার পুনরাবৃত্তি এবার হবে না। ভিসার কার্যক্রমও চলছে।

এবার মোট ১লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ যাত্রীর মধ্যে অর্ধেক পরিবহন করবে বিমান বাংলাদেশ। এ জন্য ১৫৫টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করবে সংস্থাটি। পাশাপাশি নিয়মিত ফ্লাইটেও যাবেন হজ যাত্রী। প্রথমবারের মতো ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি মদিনাতে ৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

বিজনেস আওয়ার/৭জুলাই/এমএএস

উপরে