ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫


মুনাফার তুলনায় সবচেয়ে কম দরে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের শেয়ার

২০১৮ জুলাই ১২ ১২:০০:৫৭

রেজোয়ান আহমেদ : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর মধ্যে মুনাফার তুলনায় সবচেয়ে কম দরে অবস্থান করছে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের শেয়ার। যে শেয়ারটি থেকে মাত্র ৫ বছরেই বিনিয়োগ ফেরত পাওয়া যাবে। অন্যদিকে রূপালি ব্যাংকের শেয়ারে বিনিয়োগ ফেরতে সবচেয়ে বেশি সময় লাগবে।

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মূল্য-আয় অনুপাত (পিই রেশিও) বিশ্লেষণ একটি অন্যতম হাতিয়ার। যার মাধ্যমে সহজেই বোঝা যায় বিনিয়োগ ফেরত পেতে কত সময় লাগবে। এক্ষেত্রে মার্কেন্টাইল ব্যাংক থেকে বিনিয়োগ সবচেয়ে কম সময়ে ফেরত পাওয়া যাবে। ব্যাংকটি থেকে বিনিয়োগ ফেরত পেতে সময় লাগবে ৪.৮৮ বছর।

দেখা গেছে, ১১ জুলাই লেনদেন শেষে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের শেয়ার দর দাড়িঁয়েছে ১৬.৬০ টাকা। আর ব্যাংকটির চলতি বছরের ১ম প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ০.৮৫ টাকা। এ হিসাবে বছরে ইপিএস হবে বা বিনিয়োগ ফেরত পাওয়া যাবে ৩.৪০ টাকা। যাতে ১৬.৬০ টাকার বিনিয়োগ ফেরতে লাগবে ৪.৮৮ বছর।

অন্যদিকে রূপালি ব্যাংকে বিনিয়োগকৃত অর্থ ফেরত পেতে সবচেয়ে বেশি সময় লাগবে। কোম্পানিটির শেয়ার দর অস্বাভাবিক হারে টানা বৃদ্ধির মাধ্যমে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাংকটি থেকে বিনিয়োগ ফেরত পেতে ৩৬.৪৮ বছর সময় লাগবে।

শেয়ারবাজারে বর্তমানে ১৪টি ব্যাংক থেকে ১০ বছরের মধ্যে বিনিয়োগ ফেরতে পাওয়া যাবে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সাবেক সভাপতি শাকিল রিজভী বলেন, অধিকাংশ ব্যাংকের শেয়ার বিনিয়োগযোগ্য অবস্থায় রয়েছে। পিই হিসাবে শেয়ারগুলো নিরাপদ অবস্থায় আছে।

নাম

বিনিয়োগ ফেরতে লাগবে

মার্কেন্টাইল ব্যাংক

৪.৮৮ বছর

সাউথইস্ট ব্যাংক

৫.৩৭ বছর

ঢাকা ব্যাংক

৫.৯৫ বছর

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক

৫.৯৭ বছর

প্রিমিয়ার ব্যাংক

৬.১১ বছর

ব্যাংকএশিয়া

৬.৯২ বছর

যমুনা ব্যাংক

৭.২৬ বছর

পূবালি ব্যাংক

৭.৭৪ বছর

দি সিটি ব্যাংক

৮.০৫ বছর

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক

৮.১৯ বছর

ট্রাস্ট ব্যাংক

৮.২৫ বছর

এনসিসি ব্যাংক

৯.০৪ বছর

ডাচ-বাংলা ব্যাংক

৯.২১ বছর

আইএফআইসি ব্যাংক

১০.১৭ বছর

স্যোশাল ইসলামী ব্যাংক

১০.৫৬ বছর

প্রাইম ব্যাংক

১১.৫৪ বছর

ওয়ান ব্যাংক

১১.৫৯ বছর

ইস্টার্ন ব্যাংক

১১.৬৭ বছর

আল-আরাফাহ ইসলামি ব্যাংক

১৩.২৩ বছর

ব্র্যাক ব্যাংক

১৩.৯৪ বছর

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক

১৫.১৯ বছর

উত্তরা ব্যাংক

১৫.২৬ বছর

ইসলামী ব্যাংক

১৫.৯০ বছর

এবি ব্যাংক

১৮.৫৯ বছর

ন্যাশনাল ব্যাংক

২০.২১ বছর

মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক

২০.২১ বছর

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক

৩৫ বছর

রূপালি ব্যাংক

৩৬.৪৮ বছর

এক্সিম ব্যাংক

০০

আইসিবি ইসলামীক ব্যাংক

০০

রূপালি ব্যাংকের পরে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ঝুকিতে রয়েছে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক। এ ব্যাংকটি থেকে বিনিয়োগ ফেরত পেতে ৩৫ বছর অপেক্ষা করতে হবে।

এদিকে ব্যাংকগুলোর মধ্যে লোকসানি আইসিবি ইসলামীক ব্যাংক ও এক্সিম ব্যাংক থেকে বিনিয়োগ ফেরত পাওয়া যাবে না।

বিজনেস আওয়ার/১২ জুলাই, ২০১৮/আরএ

উপরে