ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ব্যাংক খাত-২০১৮

প্রথমার্ধের ব্যবসায় উত্থানের শীর্ষে এমটিবি, পতনে ওয়ান ব্যাংক

২০১৮ জুলাই ৩১ ১০:৩৫:১০

রেজোয়ান আহমেদ : চলতি বছরের প্রথমার্ধের ব্যবসায় (জানুয়ারি-জুন ১৮) শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৫০ শতাংশ ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) বেড়েছে। এসময় সবচেয়ে বেশি উত্থান হয়েছে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের মুনাফায়। আর পতনের শীর্ষে রয়েছে ওয়ান ব্যাংক।

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের মধ্যে সবকয়টি চলতি বছরের প্রথমার্ধের আর্থিক হিসাব প্রকাশ করা হয়েছে। ৩০টি ব্যাংকের মধ্যে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২০১৮ সালের প্রথমার্ধে ১৫টি বা ৫০ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস বেড়েছে, ১৪টি বা ৪৬.৬৭ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস কমেছে এবং ১টি বা ৩.৩৩ শতাংশ ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি লোকসান বেড়েছে।

এএফসি ক্যাপিটালের প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা (সিইও) মাহবুব এইচ মজুমদার বিজনেস আওয়ারকে বলেন, মনস্তাত্তিক ও সংখ্যাত্মক কারন ব্যাংকের মুনাফায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

তিনি বলেন, ২-৪টি ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারিতে অন্য ব্যাংকগুলোতেও মানুষের আস্থার সংকট তৈরী হয়েছে। যাতে ব্যাংকগুলোর ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। আর স্বাভাবিকভাবে একটি ব্যাংক নিম্নমূখী হলে সঙ্গে আরও কয়েকটির একই অবস্থা সৃষ্টি হয়। যাতে সব মিলিয়ে এ বছরের প্রথমার্ধে অর্ধেক ব্যাংকের নিম্নমূখী অবস্থা।

২০১৮ সালের প্রথমার্ধে সবচেয়ে বেশি হারে ইপিএস বেড়েছে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের। আগের বছরের তুলনায় ব্যাংকটির ইপিএস বেড়েছে ১০৫ শতাংশ। এরপরে ৮৯ শতাংশ বেড়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে পূবালি ব্যাংক। আর ৫৯ শতাংশ বেড়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্যাংক এশিয়া।

এদিকে সবচেয়ে বেশি ইপিএস হয়েছে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের। আগের বছরের থেকে ১৫ শতাংশ বেড়ে ব্যাংকটির ইপিএস হয়েছে ৮.১৩ টাকা। এরপরে ব্র্যাক ব্যাংকের ইপিএস হয়েছে ২.৩৬ টাকা। আর ২.১৭ টাকা নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে পূবালি ব্যাংক। ২০১৮ সালের প্রথমার্ধে এই ৩টি ব্যাংকের ইপিএস ২ টাকার বেশি হয়েছে।

নিম্নে ইপিএস বৃদ্ধি পাওয়া ব্যাংকগুলোর আর্থিক অবস্থা তুলে ধরা হল-

ব্যাংকেরনাম

২০১৮ সালের প্রথমার্ধের ইপিএস

২০১৭ সালের প্রথমার্ধের ইপিএস

বৃদ্ধির হার

মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক

১.৫২ টাকা

০.৭৪ টাকা

১০৫%

পূবালী ব্যাংক

২.১৭ টাকা

১.১৫ টাকা

৮৯%

ব্যাংক এশিয়া

১.১০ টাকা

০.৬৯ টাকা

৫৯%

যমুনা ব্যাংক

১.৭৬ টাকা

১.৩০ টাকা

৩৫%

সাউথইস্ট ব্যাংক

১.৭৩ টাকা

১.২৯ টাকা

৩৪%

ন্যাশনাল ব্যাংক

০.৫৬ টাকা

০.৪৪ টাকা

২৭%

এনসিসি ব্যাংক

১.০০ টাকা

০.৮০ টাকা

২৫%

ডাচ-বাংলা ব্যাংক

৮.১৩ টাকা

৭.১০ টাকা

১৫%

স্যোশাল ইসলামী ব্যাংক

০.৪১ টাকা

০.৩৬ টাকা

১৪%

ব্র্যাক ব্যাংক

২.৩৬ টাকা

২.০৯ টাকা

১৩%

প্রিমিয়ার ব্যাংক

০.৯৭ টাকা

০.৮৮ টাকা

১০%

ইসলামী ব্যাংক

১.৮৮ টাকা

১.৭৯ টাকা

৫%

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক

১.০১ টাকা

০.৯৮ টাকা

৩%

ঢাকা ব্যাংক

০.৭৪ টাকা

০.৭৩ টাকা

১%

মার্কেন্টাইল ব্যাংক

১.৯৪ টাকা

১.৯৩ টাকা

১%

আলোচিত সময়ে সবচেয়ে বেশি ইপিএস কমেছে ওয়ান ব্যাংকের। ব্যাংকটির ৭৮ শতাংশ ইপিএস কমেছে। এরপরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৬ শতাংশ কমেছে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের। আর ৭০ শতাংশ কমে ৩য় স্থানে রয়েছে এক্সিম ব্যাংক।

নিম্নে ইপিএস হ্রাস পাওয়া ব্যাংকগুলোর আর্থিক অবস্থা তুলে ধরা হল-

ব্যাংকের নাম

২০১৮ সালের প্রথমার্ধের ইপিএস

২০১৭ সালের প্রথমার্ধের ইপিএস

কমার হার

ওয়ান ব্যাংক

০.৪০ টাকা

১.৮১ টাকা

(৭৮%)

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক

০.১০ টাকা

০.৪২ টাকা

(৭৬%)

এক্সিম ব্যাংক

০.১৩ টাকা

০.৪৪ টাকা

(৭০%)

আল-আরাফাহ ব্যাংক

০.৪৩ টাকা

১.১৪ টাকা

(৬২%)

এবি ব্যাংক

০.৩৯ টাকা

০.৭৯ টাকা

(৫১%)

ট্রাস্ট ব্যাংক

১.০৮ টাকা

২.১১ টাকা

(৪৯%)

ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক

০.৫০ টাকা

০.৮১ টাকা

(৩৮%)

রূপালি ব্যাংক

০.৪৪ টাকা

০.৬৬ টাকা

(৩৩%)

উত্তরা ব্যাংক

১.৩৮ টাকা

২.০৩ টাকা

(৩২%)

আইএফআইসি ব্যাংক

০.৪৩ টাকা

০.৬২ টাকা

(৩১%)

দি সিটি ব্যাংক

১.৫১ টাকা

২.১৮ টাকা

(৩১%)

ইস্টার্ন ব্যাংক

১.৮৩ টাকা

২.৩১ টাকা

(২১%)

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক

১.০৫ টাকা

১.২৫ টাকা

(১৬%)

প্রাইম ব্যাংক

০.৭০ টাকা

০.৭৮ টাকা

(১০%)

আগের বছরের প্রথমার্ধের ন্যায় ২০১৮ সালের প্রথমার্ধেও আইসিবি ইসলামীক ব্যাংকের লোকসান হয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যাংকটির লোকসান ১৫ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ০.৩১ টাকা।

নিম্নে লোকসানি ব্যাংকের তথ্য তুলে ধরা হল-

আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক

(০.৩১) টাকা

(০.২৭) টাকা

১৫%

বিজনেস আওয়ার/৩১ জুলাই, ২০১৮/আরএ

উপরে