ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫


মার্সেল ফ্রিজ কিনে গাড়ি পেলেন মেহেরপুরের গৃহবধূ

২০১৮ আগস্ট ০৪ ১৬:৪৫:৩০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: 'মার্সেল ঈদ মেগা ডিজিটাল ক্যাম্পেইন' এর আওতায় মার্সেল ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেয়েছেন মেহেরপুরের গৃহবধূ রোকসানা খাতুন। নতুন গাড়ি পাওয়ায় রোকসানা খাতুনের পরিবার এবং আত্মীয়-স্বজনদের মাঝে বইছে আনন্দের বন্যা।

রোকসানা খাতুন গত বৃহস্পতিবার (২ আগস্ট মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বামন্দী বাজারে মার্সেলের ডিলার শোরুম তাজ ইলেকট্রনিক্স থেকে ২৫ হাজার টাকা দিয়ে ১৪ সিএফটি আয়তনের একটি ফ্রিজ কেনেন। এরপর ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে নিজের মোবাইল নাম্বার দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করেন। এর কিছুক্ষণের মধ্যে নতুন গাড়ি পাওয়ার মেসেজ যায় তার মোবাইলে।

উল্লেখ্য, ‘ঈদ আনন্দে মাতামাতি, মার্সেল দিচ্ছে নতুন গাড়ি’ এই স্লোগান নিয়ে গত ২ জুলাই মার্সেল শুরু করে ‘ঈদ মেগা ডিজিটাল ক্যাম্পেইন’। এর আওতায় মার্সেল ফ্রিজ, টিভি ও এসি কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পেতে পারেন নতুন গাড়ি। আছে ফ্রিজ, টিভি, এসিও। এসব না পেলেও রয়েছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাকের সুযোগ।

ফ্রিজ কেনার পরদিন শুক্রবার (৩ আগস্ট) রোকসানা খাতুনের কাছে নতুন গাড়িটি হস্তান্তর করা হয়। তার হাতে গাড়ির চাবি তুলে দেন মার্সেলের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. হুমায়ূন কবীর এবং মার্সেল হেড অব সেলস ড. মো. সাখাওয়াৎ হোসেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মার্সেল যশোর জোনের এরিয়া ম্যানেজার মো. কবীর হোসেন এবং তাজ ইলেকট্রনিক্সের স্বত্তাধিকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আমিরুল ইসলাম।

রোকসানা খাতুন জানান, তার বাড়ি মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামে। স্বামী আকরাম হোসেন কৃষিকাজ করেন। পরিবারে এক ছেলে এবং মেয়ে। ছেলে হামিদুল ইসলাম (রানা) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্য। রাঙ্গামাটির ৪১ ব্যাটালিয়নে অফিস সহকারী হিসেবে কাজ করছেন। সম্প্রতি ছেলেকে বিয়ে দিয়েছেন। ছেলেবউ ফারজানা আক্তার উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষে পড়াশুনা করছেন।

তিনি বলেন, বাড়িতে এতদিন ফ্রিজ ছিল না। ছেলে টাকা পাঠিয়েছে তাই মেয়ে ও বৌমাকে নিয়ে মার্সেল শোরুমে এসেছিলাম। আমাদের আত্মীয়-স্বজনদের অনেকেই বাড়ির কাছে মার্সেলের ওই শোরুম থেকে টিভি-ফ্রিজসহ অনেক কিছু কিনেছে। তারাই জানিয়েছে মার্সেল ফ্রিজ সাশ্রয়ী দামের। আবার অনেক ভালো সার্ভিস দেয়। তাই আমরা তিনজন পছন্দ করে মার্সেল ফ্রিজটি কিনি। এরপর যখন গাড়ি পাওয়ার মেসেজ পাই, তখন খুশিতে আমরা বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ি।

রোকসানা খাতুনের ছেলেবউ ফারজানা আক্তার বলেন, আমার শাশুড়ির অনেক দিনের ইচ্ছা ছিল একটা ভালো ফ্রিজ কিনবেন। এজন্য আমরা আরো বেশ কয়েকটি কোম্পানির শোরুমে গিয়েছিলাম। কিন্তু সেসব ফ্রিজ আমাদের পছন্দ হয় নাই। মার্সেল শোরুমে এসে দেখি বাহারি ডিজাইন ও রঙের নানান মডেলের ফ্রিজ। এগুলোর দামও অন্যান্য কোম্পানির থেকে অনেক কম। সব কিছু বিচার করে আমরা সেরা কোম্পানির ফ্রিজটা কিনেই খুশি ছিলাম।

এরপর যখন গাড়ি পাওয়ার সুখবর পেলাম, তখন আমাদের আনন্দ দেখে কে! আরো ভালো লাগছে যে একদিনের মধ্যে ওনারা আমাদের হাতে গাড়ি তুলে দিয়েছেন। মার্সেল কর্তৃপক্ষকে আমরা ধন্যবাদ জানাই।

মার্সেল সূত্রে জানা গেছে, গ্রাহক ডাটাবেজ তৈরির মাধ্যমে বিক্রয়োত্তর সেবা আরো সহজতর করতে দেশব্যাপী এই ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। উদ্দেশ্য হলো অনলাইনের মাধ্যমে গ্রাহকদের দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদান। এই ক্যাম্পেইনে ক্রেতাদের অংশগ্রহণ উৎসাহিত করতে গাড়ি, ফ্রিজ, টিভি, এসি এবং নিশ্চিত ক্যাশব্যাকের ঘোষণা দেয় মার্সেল। এই সুবিধা থাকছে ঈদুল আযহা বা কোরবানি ঈদ পর্যন্ত

বিজনেস আওয়ার/০৪আগস্ট/এমএএস

উপরে