ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১ ভাদ্র ১৪২৫


‘ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন দেখেছি, আমি একজন রাজ্জাক হবো’

২০১৮ আগস্ট ০৯ ১৭:০৭:৩৫

শাকিলুর রহমান : নির্মাতা বদিউল আলম খোকন পরিচালিত ‘অন্ধকার জগত’ ছবির মধ্যে দিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো বড়পর্দায় আসছে জনপ্রিয় অভিনেতা ডি এ তায়েব। এই ছবিতে শীর্ষ সন্ত্রাসী কাঙ্গাল নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি। এতে ডি এ তায়েবের বিপরীতে অভিনয় করছেন এ সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। মাহিকে দেখা যাবে ডিবি অফিসারের ভূমিকায়। ইতিমধ্যে ঢাকার বিভিন্ন লোকেশন ও এফডিসিতে চলচ্চিত্রেটির শূটিং শেষ হয়েছে। ছবিটি এখন মু্ক্তি অপেক্ষায় রয়েছে।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের আইডল, কিংবদন্তি নায়ক রাজ রাজ্জাককে অনুকরণ করেন বাংলাদেশ শিল্পী ঐক্যজোটের প্রেসিডেন্ট ও চিত্রনায়ক ডি এ তায়েব।

এ প্রসঙ্গে চিত্রনায়ক ডি এ তায়েব বিজনেস আওয়ারকে বলেন, ‘নায়ক রাজ রাজ্জাক আমাদের আইডল। আমি তাঁকে অনুকরণ করি। আমি তাঁর মত হওয়ার স্বপ্ন দেখেছি ছোটবেলা থেকেই। আমি একজন রাজ্জাক হবো। উনার ছেলে বাপ্পা ভাই আমাদের অত্যন্ত ঘনিষ্ট, তাঁর মাধ্যমেই এই মহান ব্যক্তিটির সাথে আমার বারবার কথা হয়েছে, যোগাযোগ হয়েছে। উনি এমন অভিনয় করেছেন জীবনে যার কারণে শুধু এই বাংলা ভাষাভাষীদেরই না সারা পৃথিবীর মানুষের কাছ থেকে কখনও দূরে যাবেন না। কখনও মনে হয় না উনি নাই। কারণ রাতে তাঁর ছবি যখন দেখি তখন কিন্তু মনে হয় উনি আছেন, বেঁচে আছেন। আমি বাংলাদেশ শিল্পী ঐক্যজোটের প্রেসিডেন্ট; আমরা সংগঠনের পক্ষ থেকে উনাকে নিয়ে কিছু কর্মকান্ড হাতে নিয়েছি যা পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করবো।’

এটি আপনার দ্বিতীয় ছবি, এই ছবিতে আপনাকে কীভাবে দেখা যাবে জানতে চাইলে চিত্রনায়ক ডি এ তায়েব বিজনেস আওয়ারকে বলেন বলেন, ‘এবার খুবই উশৃঙ্খল একটা ক্যারেক্টরে কাজ করতে হচ্ছে আমাকে। ঢাকা শহরের একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী কাঙ্গাল, সারাদেশেই তার দুর্নাম রয়েছে। কিন্তু তারমধ্যেই ভালোবাসা খুজে পেয়েছে একজন সৎ পুলিশ অফিসারের (নায়িকা)। কাঙ্গালকে ধরতে এসে তার পার্সোনাল লাইফে যখন প্রবেশ করে নায়িকা, তখন আল্টিমেটলি সে তার নিজেকে হারিয়ে ফেলে। এটার একটা শাস্তিও সে পায়, পুলিশ ডিপার্টমেন্ট থেকে তাকে সাসপেন্ড করে দেয়। এই অপরাধীর ক্যারেক্টরেই দেখা যাবে আমাকে।’

তিনি আরো বলেন, ‘গল্পটি আসলেই অন্যরকম; কোন নকল গল্প নেয়া হয়নি পুরো সিনে। এই গল্পটি আসলে যারা খারাপ ছেলে খারাপ পথে চলে তাদের জীবনে ভালোবাসা যখন আসে সে তখন কত ক্রিটিক্যাল অবস্থায় পড়ে যায় তা তুলে ধরা হয়েছে। প্রেম হচ্ছে, বিয়ে হচ্ছে কিন্তু সংসার হচ্ছে না; ধরা পড়লেই তার ফাঁসি হয়ে যাবে। সমাজে ক্রাইম করে যে আল্টিমেটলি পার পাওয়া যায় না এটা গল্পের মধ্যে আছে।’

‘অন্ধকার জগত’ ছবির গল্প প্রসঙ্গে ডি এ তায়েব বিজনেস আওয়ারকে বলেন, ‘অপরাধ জগতে কোন শান্তি নেই। এরা ঘুমাতে পারে না, এদের কোথাও জায়গা নেই, সারাক্ষণ পুলিশ আতঙ্কে থাকে, প্রতিপক্ষ আছে-তারা আবার এসে খুন করতে পারে। এই যে একটা অস্থিরতাময় জীবন এটা উপলব্ধি করেছি ছবিটা করতে গিয়ে, বোঝাতে চেয়েছি এটা কোন লাইফ না। এটা বোঝানো যে আমাকে কেউ ফলো না করে, কেউ যেন মাস্তান হতে বা সন্ত্রাসী হতে না চাই। এটা পূর্ণ ভাবে তুলে ধরা হয়েছে ছবিটিতে। এরমধ্যে বাংলাদেশ পুলিশের তুহিন ও আশরাফ স্যারও কাজ করেছেন। এছারা ছবিটিতে মিশা সওদাগর, আলেক জান্ডার কাজ করেছেন।’

নায়িকা মাহির প্রশংসায় পঞ্চমুখ ডি এ তায়েব। তিনি বিজনেস আওয়ারকে বলেন, ‘মাহী খুব ভালো অভিনয় করেছে। এরমধ্যে ওর সাথে খুব ভালো বন্ধুত্ব হয়ে গেছে। খুব ভালো মেয়ে, আমার বন্ধু হওয়ার মত যোগ্যতা তার আছে। কাজের ক্ষেত্রে সে অসম্ভব সিরিয়াস এবং আমি অনেকের সাথে কাজ করেছি, বাংলাদেশের এমন কোন স্টার নেই যার সাথে আমি কাজ করিনি। কিন্তু মাহীর মত এত ভালো, ভদ্র ও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ মেয়ে আমি কমই দেখেছি। আরও আছে তবে তাদের মধ্যে মাহী নাম্বার ওয়ান। কাজের ক্ষেত্রে সে আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছে। খুব ঠান্ডা মাথার সে। আমি বিশ্বাস করি যে ছবিটি তার জীবনেও একটা মাইলফলক হয়ে থাকবে। এতবড় একটা চ্যালেঞ্জিং ক্যারেক্টার, ১৯/২০টা ড্রামা আছে এই ছবিতে তার। কোন নায়িকা এত স্পেস কোন ছবিতে পায়না। সে অসম্ভব ভালো একজন কো-আর্টিস্ট, ভালো একজন স্টার; আমি তাকে অসম্ভব পছন্দ করে ফেলেছি। তার সাথে কাজের সুযোগ হলে আমি আরো কাজ করবো।’

এই ছবিটি নিয়ে তাঁর সফলতার কথা তুলে ধরে বলেন, ‘বর্তমান চলচ্চিত্রের প্রেক্ষাপটে অনেক ভালো কাজ করেও নিরাশ হতে হয়। তবে আমি আশাবাদী এই ছবিটি মানুষের মনে দাঁগ কাটবে, মানুষ দেখবে। খুব ভালো মানের এবং বিগ বাজেটের পূর্ণাঙ্গ বাংলা ছবি এটি।’

‘অন্ধকার জগত’ ছবিতে ডি এ তায়েব ও মাহিয়া মাহি ছাড়াও আরও অভিনয় করেছেন- মিশা সওদাগর, আলেক জেন্ডার বো, আনোয়ারা বেগম, মারুফ, বাসেদ শিমন, আশরাফুল ইসলাম (পিপিএম) প্রমুখ। চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য লিখেছেন কমল সরকার। ‘অন্ধকার জগত’ ছবিটি প্রযোজনা করেছে সংস্থা এসজি প্রোডাকশনের চেয়ারম্যান মাহবুবা শাহরীন।

ডি এ তায়েবের প্রথম ছবি ‘সোনাবন্ধু’ বাণিজ্যিক সাফল্য নিয়ে দর্শক শ্রোতা মহলে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। সেখানে অভিনেতা ডিএ তায়েবের দ্বিতীয় এ ছবিটি কতটা সাফল্য পাবে সেটাই এখন দেখার বিষয়। এ জন্য অবশ্য দর্শকদের ছবিটি মুক্তি পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষ করতে হবে।

বিজনেস আওয়ার/৯আগস্ট/আর আই

উপরে