ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫


'শিল্প উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বেসরকারি খাত'

২০১৮ সেপ্টেম্বর ১৩ ১৪:৪১:৫৫

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: বেসরকারি খাতই হচ্ছে শিল্পসমৃদ্ধ বাংলাদেশ র্নিমাণের দক্ষ কারিগর। আর এই বেসরকারিখাত দেশের শিল্পের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে সিআইপি (শিল্প)-২০১৬ কার্ড হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, শিল্প মন্ত্রণালয় টেকসই বেসরকারিখাত বিকাশে ক্যাটালিস্টের ভূমিকা পালন করে আসছে। এতে করে, দেশে নতুন নতুন উদীয়মান শিল্প আত্নপ্রকাশ করছে। আমাদের রপ্তানি পণ্য বহুমুখীকরণের সুবর্ণ সুযোগ হচ্ছে এবং রপ্তানি পণ্যে মূল্য সংযোজনের পরিমাণও বাড়ছে। ফলে রপ্তানি আয়ও প্রতিবছর আগের থেকে বেড়ে চলছে।

২০০৯-১০ অর্থবছরে বাংলাদেশের রপ্তানি আয় যেখানে ছিল ১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে এর পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৩৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর এটি আমাদের বেসরকারিখাতের উদ্যোক্তাদের সক্ষমতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

তিনি বলেন, আমাদের শিল্প উদ্যোক্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিযোগিতাও বাড়ছে। বিশ্ববাণিজ্যে আমরা প্রতিদিনই নতুন নতুন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছি। এসব চ্যালেঞ্জ মোকবেলা করতে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে কাজ করতে হবে। শিল্প মন্ত্রাণালয় অতীতেও বেসরকারি শিল্পখাতের বিকাশে ফ্যাসিলিটেটরের ভূমিকা পালন করছে।

তিনি আরোও বলেন, বাংলাদেশের তৈরি ওষুধ বর্তমানে বিশ্বের ১৫২টিরও বেশি দেশে রপ্তানি করা হচ্ছে। ওষুধ শিল্পের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় এপিআই শিল্পপার্ক স্থাপনের কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। পাশাপাশি ক্লাস্টারভিত্তিক লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, প্লাস্টিক, কেমিক্যাল ও মুদ্রণ শিল্পের জন্য আলাদা শিল্পনগরি স্থাপনের কাজও চলছে। চিটাগাং কেমিক্যাল কমপ্লেক্স পুনরায় চালুকরণের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে তিনি সবাইকে জানান।

নতুন নির্মিতব্য অর্থনৈতিক অঞ্চলে দেশি উদ্যোক্তারা অগ্রাধিকার পাবেন। তারা শিল্প স্থাপনের পর জমি ফাঁকা থাকলে তা বিদেশিদের দেওয়া হবে। তাই আপনারা নতুন নতুন শিল্প স্থাপন করুন।

বিজনেস আওয়ার/১৩ সেপ্টেম্বর,২০১৮/ এনআই/এমএএস

উপরে