ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ৯ কার্তিক ১৪২৫

ss-steel-businesshour24
Runner-businesshour24

পরিচালকেরা নিচ্ছেন কোটি কোটি টাকা, শেয়ারহোল্ডাররা লভ্যাংশ বঞ্চিত

২০১৮ সেপ্টেম্বর ২৪ ০৯:৫৩:০৫

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত একই মালিকানার আরগন ডেনিমস ও ইভিন্স টেক্সটাইল থেকে সম্মানির নামে কোটি কোটি হাতিয়ে নিচ্ছেন ৭ পরিচালক। এরাই বছর শেষে শেয়ারহোল্ডারদেরকে লভ্যাংশ থেকে বঞ্চিত করছেন। যাতে বিনিয়োগ করেও কোন সুফল পাচ্ছেন না বিনিয়োগকারীরা। বরং ‘নো’ ডিভিডেন্ড ঘোষণায় শেয়ার দর কমে গিয়ে লোকসানে পড়ছেন।

ইভিন্স টেক্সটাইল ও আরগন ডেনিমসের পরিচালনা পর্ষদে রয়েছেন আনোয়ার-উল আলম চৌধুরী, শবনম শেহনাজ চৌধুরী, আবু কাওসার মজুমদার, একে গওহর রাব্বানি, মো. আক্তার শহীদ, শাহ আদিব চৌধুরী ও শাহ রায়িদ চৌধুরী। এই ৭ জন মিলে ২ কোম্পানি থেকে বছরে ৫ কোটি ৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। অথচ বছর শেষে শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ দিতে পারছেন না।

আনোয়ার-উল আলম চৌধুরী আরগন ডেনিমস ও ইভিন্স টেক্সটাইল থেকে বছরে ৯৬ লাখ টাকা সম্মানি নেন। এছাড়া শবনম শেহনাজ চৌধুরী ৮৪ লাখ টাকা, আবু কাওসার মজুমদার ৯৬ লাখ টাকা, একে গওহর রাব্বানি ৯৬ লাখ টাকা, মো. আক্তার শহীদ ৮৪ লাখ টাকা, শাহ আদিব চৌধুরী ২৪ লাখ টাকা ও শাহ রায়িদ চৌধুরী ২৪ লাখ টাকা সম্মানি নেন।

পরিচালকেরা সম্মানির নামে কোটি কোটি টাকা নিলেও ইভিন্স টেক্সটাইল থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ব্যবসায় শেয়ারহোল্ডারদের কোন লভ্যাংশ দেওয়া হবে না। কোম্পানিটির পর্ষদ গত বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) শেয়ারহোল্ডারদের কোন লভ্যাংশ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ইভিন্স টেক্সটাইলের ২০১৭-১৮ অর্থবছরে শেয়ারপ্রতি ১.০৬ টাকা হিসেবে মোট ১৬ কোটি ৭৯ লাখ টাকার নিট মুনাফা হয়েছে। যাতে কোম্পানিটির ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেওয়ার সক্ষমতা ছিল। তবে কোম্পানিটির পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ থেকে বঞ্চিত করে, পুরোটাই রিজার্ভে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আরও পড়ুন...

ইভিন্স টেক্সটাইলের সমালোচনায় ডিএসইর বোর্ড

আরগন ডেনিমসের বেড়েছে মুনাফা, কমেছে লভ্যাংশ

ইভিন্স টেক্সটাইল ৩ বছরেই ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে, শেষ প্রান্তিকে লোকসান

আনোয়ার-উল আলম চৌধুরী ইভিন্স টেক্সটাইল ও আরগন ডেনিমসসহ আরও ১৪ কোম্পানির পর্ষদে যুক্ত রয়েছেন। এছাড়া শবনম শেহনাজ চৌধুরী আরও ১২ কোম্পানিতে, আবু কাওসার মজুমদার ৩ কোম্পানিতে, একে গওহর রাব্বানি ৩ কোম্পানিতে, মো. আক্তার শহীদ ৩ কোম্পানিতে, শাহ আদিব চৌধুরী ২ কোম্পানিতে রয়েছেন। এতো কোম্পানিতে জড়িত থাকা সত্ত্বেও এরা ২ তালিকাভুক্ত কোম্পানি থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

৭ পরিচালক ইভিন্স টেক্সটাইল থেকে ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা সম্মানি নেন। এরমধ্যে কোম্পানিটি থেকে আনোয়ার-উল আলম চৌধুরী চেয়ারম্যান হিসাবে নেন ৪৮ লাখ টাকা। এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান শবনম শেহনাজ চৌধুরী ৩৬ লাখ টাকা, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু কাওসার মজুমদার ৪৮ লাখ টাকা, পরিচালক একে গওহর রাব্বানি ৪৮ লাখ টাকা, পরিচালক মো. আক্তার শহীদ ৩৬ লাখ টাকা, পরিচালক শাহ আদিব চৌধুরী ১২ লাখ টাকা ও পরিচালক শাহ রায়িদ চৌধুরী ১২ লাখ টাকা নেন।

এদিকে ৭ পরিচালক আরগন ডেনিমস থেকে নেন ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকার সম্মানি। এরমধ্যে চেয়ারম্যান শবনম শেহনাজ চৌধুরী ৪৮ লাখ টাকা, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনয়ার-উল আলম চৌধুরী ৪৮ লাখ টাকা, পরিচালক আবু কাওসার মজুমদার ৪৮ লাখ টাকা, পরিচালক একে গওহর রাব্বানি ৪৮ লাখ টাকা, পরিচালক মো. আক্তার শহীদ ৪৮ লাখ টাকা, পরিচালক শাহ আদিব চৌধুরী ১২ লাখ টাকা ও পরিচালক শাহ রায়িদ চৌধুরী ১২ লাখ টাকা নেন।

এ বিষয়ে জানতে ইভিন্স টেক্সটাইলের সচিব মো. মোস্তফা কামালের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

বিজনেস আওয়ার/২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮/আরএ

উপরে