ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫


অদক্ষের শীর্ষে সরকারী ব্যাংক

২০১৮ নভেম্বর ০৭ ২০:২৭:৩১

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : সরকারী মালিকানাধীন ব্যাংকগুলো সর্ব্বোচ্চ পরিমান অদক্ষ। আর তার পরে অবস্থান করেছে বেসরকারী বানিজ্যিক ব্যাংক এবং ইসলামিক ব্যাংক। বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অফ ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) গবেষণা প্রতিবেদনের প্রথম পত্রটিতে এসব কথা উঠে এসেছে।

বুধবার (৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অফ ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) অডিটোরিয়ামে 'বার্ষিক ব্যাংকিং সম্মেলন ২০১৮' শীর্ষক সেমিনারে এ গবেষনা প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

প্রথম পত্রটি বিভিন্ন রকম ব্যাংকের (সরকারী ও বেসরকারী মালিকানাধীন এবং ইসলামিক) পারফরমেন্স নিয়ে আলোচনা করেছে , যার সময়কাল ছিল ২০০৯-২০১৪। পত্রটি ভাব অনুসন্ধানে এ কথা উঠে এসেছে।

দ্বিতীয় পত্রটি ভারতীয় ব্যাংকের বাজার কাঠামো এবং মুনাফা ঝুঁকি আলোচনা করেছে। পত্রটি ঝুঁকির সাথে মুনাফার ঋণাত্মক সম্পর্ক নির্নয় করেছে ; পাশাপাশি বাজারে প্রতিযোতিার সাথেও মুনাফার ঋণাত্মক সম্পর্ক বিরাজ করে বলে পত্রটি উল্লেখ করেছে। তবে পত্রটি তারল্য এবং ব্যাংকের গঠনের সাথে মুনাফার কোনও তাৎপর্যপূর্ন সম্পর্ক পায়নি।

তৃতীয় পত্রটি ব্যাংকের স্থিতিশীলতার একটি সূচক গঠন করেছে, যার জন্য ইহা নমুনা হিসাবে ৬৬টি ভারতীয় ব্যাংককে বেছে নিয়েছে। পত্রটি বলেছে ভারতে সরকারী বেসরকারী ব্যাংক অনেক বেশী স্থিতিশীল তা বলা যাবে না। যদিও তারল্য ব্যাংকগুলো মোটামুটি স্থিতিশীল।

শেষ পত্রটি নন পারফর্মিং লোন নিয়ে আলোচনা করেছে। যা ব্যাংক নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠানের জন্য বিশাল এক উদ্বেগ। পত্রটি নির্দিষ্ট দেশসমূহের ব্যাংকগুলোর ঘচখ ব্যাবস্থাপনা কৌশল নিয়ন্ত্রন সংস্থাকারী পদক্ষেপ এবং ঘচখ সংক্রান্ত অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছে যা ঘচখ কমাতে সহায়ক হবে। পত্রটি বলেছে সর্তক পরিকল্পনা, কার্যকর সিদ্ধান্ত গ্রহন, ব্যাংক পরিদর্শন এবং মূলধন পর্যাপ্ততা ঘচখ সমস্যা সমাধানে অগ্রনী ভূমিকা রাখে।

বিজনেস আওয়ার/ ৭ নভেম্বর,২০১৮ / আর আই

উপরে