ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫


আসিয়া বিবিকে মুক্তি দিলো পাকিস্তান

২০১৮ নভেম্বর ০৮ ০৯:৪৮:১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ধর্ম অবমাননার অভিযোগে মৃত্যুদণ্ডাদেশ মাথায় নিয়ে আট বছর কারাগারে থাকার পর মুক্তি পেয়েছেন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী পাকিস্তানি নারী আসিয়া বিবি। উচ্চ আদালত মৃত্যুদণ্ড বাতিলের পর বুধবার রাতে মুলতানের কারাগার থেকে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয় তাকে।

মুক্তির পর আসিয়া বিবি কোথায় গেছেন তা জানা যায়নি। তবে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তাকে একটি প্লেনে তোলা হয়েছে। গত সপ্তাহে আসিয়ার স্বামী নিরাপত্তার জন্য বিদেশে আশ্রয় প্রার্থণা করেছিলেন। ওই সময় বেশ কয়েকটি দেশ তাদের আশ্রয় দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, তাকে রাজধানী ইসলামাবাদের কাছেই বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে প্রাণনাশের হুমকির কারণে তাকে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে।

প্রাণনাশের হুমকির মুখে নেদারল্যান্ডসে পালিয়ে যাওয়া আসিয়া বিবির আইনজীবী সাইফ-উল-মুলকও বিষয়টি টেলিফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, আমি আপনাদের যেটা বলতে পারি সেটা হচ্ছে, তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

বালতি থেকে পানি পান করা নিয়ে ২০০৯ সালে মুসলিম প্রতিবেশী নারীদের সঙ্গে ঝগড়ায় জড়িয়েছিলেন আসিয়া। ওই সময় ইসলামের নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নিয়ে আসিয়া অবমাননাকর মন্তব্য করেছিলেন বলে অভিযোগ করেন ওই নারীরা।

এই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তার মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। গত ৩১ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট সেই দণ্ডাদেশ বাতিল করে আসিয়ার মুক্তির নির্দেশ দেয়। এই রায় বাতিলের দাবিতে সহিংস বিক্ষোভ শুরু করে পাকিস্তানের কট্টরপন্থী ইসলামি দলগুলো।

বিক্ষোভের রাশ টানতে তেহরিক-ই-লাবাইকের (টিএলপি) সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে পাকিস্তান সরকার। ওই চুক্তির আওতায় আসিয়া বিবির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপে রাজী হয় সরকার।

বিজনেস আওয়ার/০৮ নভেম্বর, ২০১৮/এমএএস

উপরে