ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫


আইপিও অর্থ ব্যবহারের পরে লভ্যাংশ প্রদান কমেছে

২০১৮ নভেম্বর ১৩ ১১:৫৯:২৫

রেজোয়ান আহমেদ : শেয়ারবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) উত্তোলিত টাকা ব্যবহারের পরে কোম্পানিগুলোর লভ্যাংশ প্রদান কমেছে। তবে এই অর্থ ব্যবহারের আগে লভ্যাংশের পরিমাণ বেশি ছিল। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর প্রকৃত চিত্র বেরিয়ে আসছে বলে মনে করেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

২০১৫ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া কোম্পানিগুলোর তথ্য বিশ্লেষণে এ চিত্র দেখা গেছে।

ওই বছরে ১৩টি কোম্পানি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে। এরমধ্যে ১০টি কোম্পানির লভ্যাংশ আইপিও অর্থ ব্যবহারের পূর্বের চেয়ে কমে এসেছে। আর ২টি কোম্পানির লভ্যাংশ অপরিবর্তিত রয়েছে। বাকি ১টি কোম্পানির লভ্যাংশের পরিমাণ বেড়েছে।

দেখা গেছে, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ ২০১৫ সালের ১৭ জুন আইপিও’র মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে টাকা উত্তোলন করেছে। তবে এই টাকা ব্যবহার করতে না পারলেও আইপিওধারী শেয়ারহোল্ডারদেরকে ২০১৪ সালের ব্যবসায় ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়। অথচ আইপিও’র অর্থ ব্যবহারের পরে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য সেই লভ্যাংশ কমে এসেছে ১০ শতাংশে। অন্যান্য কোম্পানিগুলোর ক্ষেত্রেও এমন চিত্রই দেখা গেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবু আহমেদ বিজনেস আওয়ারকে বলেন, এখন তো কোম্পানিগুলো কৃত্রিম মুনাফা দেখিয়ে শেয়ারবাজারে আসে। যার প্রতিফলন ২-৩ বছর পরেই বোঝা যায়। আর এই কারনেই আইপিও ফান্ড ব্যবহারের পরেও কোম্পানিগুলোর লভ্যাংশ প্রদানের পরিমাণ কমছে। অন্যথায় কমে আসার কোন সুযোগ নাই।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালক শাকিল রিজভী বিজনেস আওয়ারকে বলেন, স্বাভাবিকভাবেই আইপিও অর্থ ব্যবহারের পরে কোম্পানির মুনাফা বাড়বে। যাতে লভ্যাংশ প্রদানের পরিমাণও বাড়বে। কিন্তু আইপিও ফান্ড ব্যবহারের পূর্বের তুলনায় কমে যাওয়ার কোন যৌক্তিকতা থাকতে পারে না। আর এমনটি হলে, কোম্পানির নেতিবাচক উদ্দেশ্যকেই বোঝায়।

লভ্যাংশ কমে আসা কোম্পানিগুলো হল- ইনফরমেশন টেকনোলজি, রিজেন্ট টেক্সটাইল, সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, ইফাদ অটোস, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, শাঁশা ডেনিমস, জাহিন স্পিনিং ও ন্যাশনাল ফিড মিলস। এই কোম্পানিগুলো আইপিও ফান্ড ব্যবহারের আগে বা প্রথমবার যে পরিমাণ লভ্যাংশ প্রদান করেছে, শেষ বার তার চেয়ে কম দিয়েছে।

কোম্পানির নাম

লভ্যাংশ

২০১৫

২০১৬

২০১৭

২০১৮

ইনফরমেশন টেকনোলজি

১৫% বোনাস

৬% নগদ ও ৪% বোনাস

১০% বোনাস

রিজেন্ট টেক্সটাইল

১০% নগদ ও ৫% বোনাস

১০% নগদ

৫% বোনাস

সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ

২০% নগদ ও ২% বোনাস

২% নগদ ও ১০% বোনাস

৫% নগদ ও ১৫% বোনাস

অলিম্পিক এক্সেসরিজ

৫% নগদ ও ৭% বোনাস

১২% বোনাস

১০% বোনাস

১০% বোনাস

তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ

৫% নগদ ও ৭% বোনাস

১২% নগদ

১০% নগদ

৫% নগদ ও ৫% বোনাস

ইফাদ অটোস

৭% নগদ ও ৩০% বোনাস

১৩% নগদ ও ৪% বোনাস

২১% নগদ ও ৫% বোনাস

২২% নগদ

সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল

১২% বোনাস

১০% বোনাস

করে নাই

করে নাই

শাঁশা ডেনিমস

২০% নগদ ও ১৫% বোনাস

২৫% নগদ

২৫% নগদ ও ৬% বোনাস

১৫% নগদ ও ৭% বোনাস

জাহিন স্পিনিং

১৫% বোনাস

১৫% বোনাস

১৫% বোনাস

১০% বোনাস

ন্যাশনাল ফিড মিল

১০% বোনাস

১৫% বোনাস

১০% বোনাস

৫% বোনাস

আইপিও অর্থ ব্যবহারের পরেও লভ্যাংশ অপরিবর্তিত থাকা কোম্পানিগুলো হল- কেডিএস এক্সেসরিজ ও আমান ফিড।

কোম্পানির নাম

লভ্যাংশ

২০১৫

২০১৬

২০১৭

২০১৮

কেডিএস এক্সেসরিজ

৫% নগদ ও ১০% বোনাস

১০% নগদ ও ৫% বোনাস

১০% নগদ ও ৫% বোনাস

আমান ফিড

১০% নগদ ও ২০% বোনাস

২০% নগদ ও ১০% বোনাস

২০% নগদ ও ১০% বোনাস

২০% নগদ ও ১০% বোনাস

এদিকে একমাত্র বিএসআরএম লিমিটেডের আইপিও ফান্ড ব্যবহারের পরে লভ্যাংশ প্রদানের পরিমাণ বেড়েছে।

কোম্পানির নাম

লভ্যাংশ

২০১৫

২০১৬

২০১৭

২০১৮

বিএসআরএম লিমিটেড

১০% নগদ

৫% নগদ ও ১০% বোনাস

১০% নগদ ও ১০% বোনাস

১০% নগদ ও ১০% বোনাস

বিজনেস আওয়ার/১৩ নভেম্বর, ২০১৮/আরএ

উপরে