ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫


উচ্চরক্তচাপ কমাবে চার সবজি

২০১৮ ডিসেম্বর ০৫ ২১:১৪:৫৭

বিজনেস আওয়ার ডেস্কঃ বর্তমান সময়ে প্রচলিত একটি সমস্যা হলো উচ্চরক্তচাপ। বিশ্বের অনেক মানুষ এই রোগে ভুগছেন। বয়স্কদের পাশাপাশি এখন তরুণরাও আক্রান্ত হচ্ছেন এই রোগে। আর এড়িয়ে চলতে চাইলে এই রোগ, জীবন ধারণ পদ্ধতিতে আনতে হবে পরিবর্তন। পাশাপাশি খাবারও খেতে হবে সতর্ক হয়ে। তাতে উচ্চরক্তচাপে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমবে এবং আক্রান্ত হয়ে থাকলে সমস্যাটি থকবে নিয়ন্ত্রণে।

মূলাঃ বাংলাদেশে শীতকালে সময়টাতে বাজারে প্রচুর সবজি পাওয়া যায়। এসব সবজি থেকে বেশ কয়েকটি আপনার খাবার তালিকায় রাখলে নিজেকে উচ্চরক্তচাপ থেকে দূরে কিংবা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন।উচ্চরক্তচাপ কমাতে সাহায্য করবে মূলা। মূলাতে রয়েছে পটাসিয়াম যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ। এটি সালাদে ব্যবহার করা যায়। এ ছাড়া মূলা দিয়ে হতে পারে সুস্বাদু স্যুপও। শীতকালে বাংলাদেশে এই সবজির দাম অনেক কম থাকে। সেজন্য প্রতিদিনের খাবার তালিকায় মূলা রাখার চেষ্টা করুন।

গাজরঃ উচ্চরক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে গাজরে থাকা প্রচুর পটাসিয়াম । পটাসিয়াম আপনার রক্তনালী ও ধমনীর উত্তেজনা হ্রাস করবে। এটি সোডিয়ামের ক্ষতিকর প্রভাবও কমাবে। এই সবজি উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে খুবই সহায়ক।

বিটমূলঃ বিটমূলও সাহায্য করতে পারে উচ্চরক্তচাপ কমাতে। বিটমূলের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট নিম্ন রক্তচাপ এবং কোলেস্টেরল মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। এর ভিটামিন-বি স্নায়ুর কার্যকারিতাকে উন্নত করে। গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, বিটমূল নাইট্রিক অক্সাইড গ্যাস উৎপন্ন করে। এই গ্যাস রক্তনালীকে শিথিল ও প্রসারিত করতে সহায়তা করে। ফলে রক্ত প্রবাহ আরও উন্নত হয় এবং সাময়িকভাবে রক্তচাপ কমে। এসব উপকারের জন্য বিটমূল জুস হিসেবেও খাওয়া যেতে পারে।

পালং শাকঃ এছাড়াও উচ্চরক্তচাপ কমাতে সাহায্য করবে আপনাকে পালং শাক। পালং শাকে রয়েছে পটাসিয়াম ও লুটিন। লুটিন ধমনীর ঘন হয়ে যাওয়াকে বাধা দেয় এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। এতে থাকা ফোলেইট, ম্যাগনেসিয়াম ও পটাশিয়াম রক্তচাপের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

বিজনেস আওয়ার/০৫ ডিসেম্বর, ১০১৮/আরআই

উপরে