sristymultimedia.com

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬


বিপদ-মুসিবত পাপের ফল নয়!

০৭:৪৮পিএম, ০৩ নভেম্বর ২০১৯

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক : কোনো মানুষের দুঃখ-দুর্দশা দেখে মুখে কিছু না বললেও অন্তরে অনেক সময় এমন ভাব আসে যে, লোকটি মনে হয় জীবনে অনেক পাপ করেছে। এখন সে ওই পাপের ফল ভোগ করছে।

আবার অনেক সময় নানা কথাবার্তায় প্রায়ই বলি, আজকে তার এমন অবস্থা পাপের ফল। কেউ কঠিন কোনো পাপ না করলে, এমন নিদারুণ দৃশ্য দেখতে হতো না। এমন নানা মন্তব্য সমাজের লোকদের মুখে অহরহ শোনা যায়।

অনেকে আবার নিজের জীবনের সমস্যা, ব্যথা-বেদনা, দুঃখ-দুর্দশার বর্ণনা দিতে যেয়ে বলে থাকেন, আল্লাহ হয়তো আমাকে অপছন্দ করেন, তারই ফল ভোগ করতে হচ্ছে!

কোরআন-সুন্নাহর শিক্ষা আর নবী-রাসূলদের জীবনাদর্শের আলোকে এমন চিন্তা-ভাবনা ও কথাবার্তাকে অমূলক এবং ভ্রান্ত হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। ইসলামের কথা হলো- মুসিবত তো মুমিন জীবনের নিত্যসঙ্গী। অনেকটা খাবার গ্রহণের মতো।

প্রতিদিনই মানুষকে ক্ষুধা যেমন কষ্ট দেয় তখন খাবার খেয়ে তৃপ্তি পাই। অনুরূপভাবে মুমিন জীবনের কষ্টগুলো তাকে যখন ব্যথিত করে, তখন মহামহিম রবের সান্নিধ্যে গিয়ে আত্মাকে প্রশান্ত করার অনুপম একটা সুযোগ সে লাভ করে। এটা মুমিন জীবনের পরম পাওনা।

সুস্থ থাকার জন্যে যেমন ক্ষুধার অনুভবটা স্বাভাবিক বিষয়, তেমনি মুমিন তার ঈমানকে সবল রাখার জন্য প্রতিনিয়ত নানান মুসিবতে আপতিত হয়। আল্লাহতায়ালা মুমিন জীবনের সঙ্গে মুসিবতকে এভাবেই জুড়ে দিয়েছেন।

এ হাদিস দু’টি তার জ্বলন্ত প্রমাণ। হজরত আবু হুরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, আল্লাহতায়ালা যে ব্যক্তির কল্যাণ কামনা করেন তাকে তিনি দুঃখ-কষ্টে পতিত করেন। -সহিহ বোখারি: ৫৬৪৫

আরেক হাদিসে ইরশাদ হয়েছে, হজরত আবু হুরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, মুমিনের দৃষ্টান্ত শস্যক্ষেতের মতো। বাতাস সবসময় তাকে আন্দোলিত করে।

অনুরূপভাবে মুমিনের ওপরও সবসময় বিপদাপদ আসতে থাকে। আর মুনাফিকের দৃষ্টান্ত দেবদারু গাছের মতো। মূল উৎপাটন হয়ে যায়; কিন্তু সেটা আন্দোলিত হয় না। -সহিহ মুসলিম: ৬৯৮৫

বিজনেস আওয়ার/০৩ নভেম্বর, ২০১৯/এ

উপরে