sristymultimedia.com

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬


মাঠ থেকে তুলে নেয়ায় সোজা দেশে চলে গেলেন রোনালদো

১২:৪২পিএম, ১২ নভেম্বর ২০১৯


স্পোর্টস ডেস্ক : চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও মাঝপথে এসে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে মাঠ থেকে তুলে নেন কোচ মাওরিসিও সারি। কিন্তু এসি মিলানের বিপক্ষে মাঠ থেকে তুলে নেয়াটাকে ভালোভাবে মেনে নিতে পারেননি রোনালদো। যার ফলে দেখিয়েছেন ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া।

মাঠ থেকে রোনালদোকে তুলে কোচ যখন পাওলো দিবালাকে নামান, তখন সিআর সেভেন সাইড বেঞ্চে না বসে সোজা চলে যান ড্রেসিং রুমে। তারপর সেখান থেকে সোজা বাসায়।

কিন্তু বিষয়টা সেখানেই সীমাবদ্ধ থাকলো না। সিআর সেভেন সোজা উড়াল দিলেন নিজ দেশ পর্তুগালের উদ্দেশ্যে। সেখানে তিনি যোগ দিয়েছেন জাতীয় দলের ক্যাম্পে।

এর আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও লোকোমোটিভ মস্কোর বিপক্ষে ম্যাচে রোনালদোকে মাঝপথে তুলে নেন কোচ সারি। তিনি মাঠে নামান দিবালাকে।

ম্যাচ শেষে সারি পাওলো দিবালাকে নামানোর যুক্তি তুলে ধরে বলেন, আমি অনুভব করেছি, রোনালদো বাঁ-পায়ের গোড়ালিতে একটু টান লেগেছে। এ কারণেই তাকে তুলে নিতে বাধ্য হয়েছি।

ম্যাচের ৫৫ মিনিটে রোনালদোকে যখন তুলে নিচ্ছেন কোচ সারি, তখন তাকে হাত ছুড়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায়। দিবালার সঙ্গে আলতো করে হাত মেলান মাঠ ছাড়ার সময়।

এরপর কটমট দৃষ্টিতে সারির দিকে তাকিয়ে ছিলেন কিছুটা সময়। মুখও নড়তে দেখা যায় তার। তবে কিছু বলেছেন কি না শোনা যায়নি। এরপরই রিজার্ভ বেঞ্চের দিকে না হেঁটে সোজা চলে যান টানেলে। সেই সময় সমর্থকরাও ব্যঙ্গ করে তাকে লক্ষ্য করে।

ড্রেসিংরুমে গিয়ে ড্রেস চেঞ্জ করে গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে যান স্টেডিয়াম ছেড়ে। ম্যাচ শেষ হতে তখনও মিনিট তিনেক বাকি। এর মানে, দিবালা ৭৭ মিনিটে যে গোলটি করেছেন, তা না দেখলেও জেনে গিয়েছিলেন সিআরসেভেন।

এটুকুতেই শেষ নয়। চলতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার ও রবিবার পর্তুগালের ইউরো কোয়ালিফায়ারের ম্যাচ আছে। বৃহস্পতিবারের ম্যাচ পর্তুগালের ঘরের মাঠে লিথুয়ানিয়ার বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচ খেলতে রোনাল্দো নাকি রাতেই তুরিন ছেড়ে পর্তুগালের দিকে পাড়ি দিয়েছেন।

বিজনেস আওয়ার/১২ নভেম্বর, ২০১৯/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে