ঢাকা, বুধবার, ১৮ জুলাই ২০১৮, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫


সিসিটিভি’র ফুটেজ দেখে সিদ্দিক হত্যাকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা

২০১৭ নভেম্বর ১৭ ১৭:২৩:০০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ রাজধানীর বনানীতে খুন হওয়া ব্যাবসায়ী সিদ্দিক হোসেন মুন্সি হত্যায় জড়িতদের ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার (সিসি) ফুটেজ পর্যালোচনা করে গ্রেফতারে তৎপর হয়েছে পুলিশ। শুধু তাই নয় বনানী থানা পুলিশের পাশাপাশি ঘটনার ছায়া তদন্ত করছে ডিএমপি’র গোয়েন্দা পুলিশ।

তদন্তের স্বার্থে গোয়েন্দা পুলিশ এব্যাপারে এখনই কিছু বলতে রাজি নয়। তবে ঘটনার নেপথ্যে চাঁদাবাজির বিষয়টির প্রমাণ মিলছে না এই বিষয়টি জানাগেছে। আর্থিক, ব্যবসায়িক এবং পারিবারিক কিংবা স্থানীয় দ্বন্দ্বের বিষয়গুলো গুরুত্ব দিয়ে ঘটনার তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা।

অন্যদিকে থানা পুলিশ বলছে, সিসি ক্যামেরার ফুটেজে হত্যাকারীদের ছবি অস্পষ্ট হওয়ায় পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। ফোন কল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিডিয়ায় কোনো ধরনের ক্লু রয়েছে কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্তের স্বার্থে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। ওই ঘটনায় ভবনটির নিরাপত্তায় নিয়োজিত প্রহরী বায়েজিদ বাজি ও অফিস স্টাফ আলী হোসেনকে আটক করে বনানী থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য গত মঙ্গলবার রাতে বনানীর ৪ নম্বর রোডের বি ব্লকের ১১৩ নম্বর বাড়িতে অবস্থিত রিক্রুটিং এজেন্সি ‘এমএস মুন্সি ওভারসিজ’অফিসের কর্ণধর সিদ্দিক হোসেন মুন্সিকে (৫০) গুলি করে হত্যা করে চার জন দুর্বৃত্ত। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠানের ৩ কর্মকর্তা মির্জা পারভেজ (৩০), মোখলেসুর রহমান (৩৫) ও মোস্তাফিজুর রহমান (৩৯) গুলিবিদ্ধ হন।

এ ঘটনায় ১৫ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টার দিকে বনানী থানায় নিহত ব্যবসায়ী সিদ্দিকের স্ত্রী জোৎস্না বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা চারজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহত সিদ্দিক হোসেন মুন্সি তার স্ত্রী জোসনা বেগম, দুই মেয়ে সাবরিনা সুলতানা ও সাবিহা সিদ্দিক এবং ছেলে মেহেদী হাসানকে নিয়ে রাজধানীর উত্তরা ৪ নম্বর সেক্টরের ৭ নম্বর সড়কে একটি বাসায় বসবাস করতেন। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায়।

বিজনেস আওয়ার / ১৭ নভেম্বর ২০১৭ / এমএএস

উপরে