ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

Bijoy-month-businesshour24

খাতুনগঞ্জের শীতবস্ত্র ব্যবসায়ীরা লোকসান আতঙ্কে

২০১৭ নভেম্বর ১৭ ১৭:২৪:৪৩

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ দেশের সর্ববৃহৎ ভোগ্যপণ্যের পাইকারি ব্যবসা কেন্দ্র চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জন। বছরের বেশিরভাগ সময় বিভিন্ন ধরণের ভোগ্যপণ্য ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকে এখানকার ব্যবসায়ীরা। শীতকালে আমিন মার্কেটের ২৫-৩০ টি দোকানের ব্যবসায়ীরা আমদানি করে পুরাতন শীতের কাপড়।

চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আমদানি করা হয় তাইওয়ান, জাপান, কোরিয়া থেকে পুরনো কাপড়ের গাঁট। মূলত কার্তিক, অগ্রহায়ণ,পৌষ ও মাঘ এ চার মাস পুরনো কাপড়ের ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত থাকেন এখানকার ব্যবসায়ীরা। প্রতিটি দোকানে থাকে থাকে সাজানো আছে কাপড়ের গাঁট।

ব্যবসায়ীরা জানান, আমরা তাইওয়ান, কোরিয়া ও কিছু জাপান থেকে আমদানি করে থাকি। গরিব-বড় লোক সবাই কম দামে এ কাপড় কিনে ব্যবহার করে।’

আমদানিকৃত গাঁটগুলোর মধ্যে বেবি পোশাক, ছোয়েটার, জ্যাকেট, গরম কাপড়, কম্বলসহ নানা ধরণের কাপড় থাকে। এসব পণ্যের ক্রেতা নিম্ন আয়ের লোকজন হলেও বড় লোকরাও এগুলো ব্যবহার করে।

এখন শীত মৌসুম হলেও দেখা নেই শীতের, যেকারণে জমে ওঠেনি ব্যবসা। তাই লোকসান আঙ্ককে ব্যবসায়ীরা। এবিষয়ে ব্যবসায়ীরা জানান, ‘আমরা অনেক টাকা বিনিয়োগ করেছি কিন্তু এখনও বাজার জমে ওঠেনি। কিভাবে মূলধন তুলবো বুঝতে পারছি না। এদিকে সরকার অনেক টাকা ট্যাক্স নির্ধারণ করেছে। এদেশের ১৬কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় এক কোটি মানুষ শীতকালীন এসব পণ্যের ওপর নির্ভর বলে এখানকার ব্যবসায়ীদের দাবি।

বিজনেস আওয়ার / ১৭ নভেম্বর ২০১৭ / এমএএস

উপরে