ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫

ss-steel-businesshour24
Runner-businesshour24

২ বছর ১১ মাস বয়সী বাংলাদেশী শিশুর সফল লিভার প্রতিস্থাপন

২০১৭ নভেম্বর ১৭ ২২:৩০:৫৩

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: দিল্লিতে ইন্দ্রপ্রস্থ অ্যাপোলো হাসপাতালে লিভার প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে নতুন জীবন পেয়েছে মাত্র ২ বছর ১১ মাস বয়সী এক বাংলাদেশী শিশু।সম্প্রতি হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা সফলভাবে তার লিভার প্রতিস্থাপনের সাফল্য দেখিয়েছেন।

আমান জাওয়াদ নামে ওই শিশুটিকে গত ১১ সেপ্টেম্বর ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরে জানা যায় হেপাটাইটিস-এ এর কারণে শিশুটির লিভার বিকল হয়ে গেছে। চিকিৎসকরা জরুরি ভিত্তিতে শিশুটির লিভার প্রতিস্থাপন (ট্রান্সপ্ল্যান্ট)করাতে বললেন। ডাক্তারের পরামশের্ শিশুটির পরিবার তাকে দ্রুত দিল্লির অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তির করেন।প্রাথমিক পরীক্ষার পর সেখানকার চিকিৎসকরা দ্রুত লিভার প্রতিস্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেন। অবশেষে.. জটিল অপারেশনের মাধ্যমে মায়ের লিভার শিশুটির শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয়।মাত্র তিন সপ্তাহে সে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে।

লিভার প্রতিস্থাপনের সঙ্গে যুক্ত অ্যাপোলো হাসপাতালের গ্রুপ মেডিকেল ডিরেক্টর ওগ্যাস্ট্রোএনটেরলজিস্ট ও হেপাটলজিস্ট ড. অনুপম সিবাল বলেন, অপারেশনটি ছিল খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ শিশুটি ইতোমধ্যেই হেপাটনিক এনকেফেলাপ্যাথি’র তৃতীয় পর্যায়ে থাকার কারণে লিভার দেহ থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিতে পারছিল না। এরফলে মস্তিষ্কও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিল। এই পরিস্থিতিতে জরুরি ভাবে লিভার প্রতিস্থাপনই ছিল শিশুটিকে বাঁচানোর একমাত্র উপায়। আমরা এমন একটি জটিল কাজ বিপদমুক্তভাবে করতে পেরে অত্যন্ত খুশি।

এ সম্পর্কে দিল্লি অ্যাপোলো হাসপাতালের সিনিয়র লিভার ট্রান্সপ্লান্ট সার্জন ড. নিরব গয়াল বলেন, শিশুটি খুবই অসুস্থ ছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে শিশুটির ডায়ালাইসিস করানো হয়। তীব্র লিভারের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এই শিশুটির জন্য স্বাভাবিক লিভার ট্রান্সপ্লান্ট এর চেয়ে উন্নত ট্রান্সপ্লান্ট প্রয়োজন ছিল।

১৯৯৮ সালে দিল্লি অ্যাপোলো হাসপাতালে প্রথমবারের মত সফল লিভার ট্রান্সপ্লান্ট সম্পন্ন হয়। তখন থেকে দুই হাজার নয়শর বেশি লিভার ট্রান্সপ্লান্ট সম্পন্ন হয়যার মধ্যে ২৩৫ জনই ছিল শিশু।১৯৯৮ সালে মাত্র ১৮ মাস বয়সে ভারতে প্রথমবারের মতো যে শিুটির সফল লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করানো হয় সেইশিশুটি নিজেও এখন একটি মেডিকেলের ছাত্র।

বিজনেস আওয়ার/এন

উপরে