ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫


‘বিশ্বের বাণিজ্য মহলের দৃষ্টি ঘুরছে এশিয়ার দিকে’

২০১৭ নভেম্বর ২৭ ১১:২৮:৫৫

বিজনেস আওয়ার : এশিয়া হতে পারে আগামী দশকের বিশ্ব অর্থনীতির মূল শক্তি। তাই এখন থেকে আমেরিকা-ইউরোপ নয় বরং বিশ্বের বাণিজ্য মহলের দৃষ্টি ঘুরে যাচ্ছে এশিয়ার দিকেই। কলকাতায় দুই দিনের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সম্মেলন অংশ নিয়ে বক্তারা এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। রোববার সন্ধ্যায় কলকাতায় হরেসিস-আইসিসি'র যৌথ বাণিজ্যিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। এছাড়া ভারত, চীন, ভুটান, নেপাল ছাড়াও জাপানের বাণিজ্যিক প্রতিনিধিরা এই সম্মেলনে অংশ নেন।

কলকাতার রাজারহাটের অত্যাধুনিক এই হোটেলে চলছে ইউরোপীয় অর্থনীতির প্রধান ‘থিঙ্ক ট্যাঙ্ক’ হিসেবে পরিচিত হরাসিস এবং ভারতের প্রভাবশালী বাণিজ্যিক সংগঠন ইন্ডিয়ান চেম্বার অফ কমার্স- আইসিসির যৌথ বাণিজ্যিক সম্মেলন। রোববার সন্ধ্যায় এই সম্মেলনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেশনে অংশ নেন বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান।

সম্মেলনে অংশ নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ ২০২১ সাল নাগাদ ৬০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা হাতে নিয়েছে। ভারতের সঙ্গে অ্যান্টি ডাম্পিং, ট্যারিফ-নন ট্যারিফ সমস্যা থাকলেও আলোচনার মধ্যদিয়ে সেগুলো সমাধান করা সম্ভব বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন। শিগগিরই ভারত ও চীনে রপ্তানি বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়ার কথাও জানান মন্ত্রী।

এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্কে ত্রুটি বিচ্যুতিগুলো সংশোধন করা যাবে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান।

আগামীতে এশিয়া বিশ্বের অর্থনীতির প্রধান চালিকা শক্তি হিসাবে আত্মপ্রকাশ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন সম্মেলনের আয়োজকরা। বাংলাদেশের চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের প্রেসিডেন্ট মাতলুব আহমাদ বলেন, আর কয়েক বছর পরেই বিনিয়োগকারীরা ইউরোপ-আমেরিকা থেকে দৃষ্টি সরিয়ে এশিয়ার দিকে নজর দেবে।

ইন্ডিয়ান চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি শ্বাশত গোয়েঙ্কা বলেন, হরাসিস হলো বিভিন্ন দেশের রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক নেতাদের নিয়ে গঠিত একটি গ্লোবাল কমিউনিটি। আগামী কয়েক বছরের মাথায় এশিয়ার অর্থনৈতিক কিভাবে এগিয়ে নেয়া হবে, এই কমিউনিটির সদস্যরা সে বিষয়েই আলোচনা করে।

মিয়ানমারের মান্ডেলিয়ার মুখ্যমন্ত্রী জ মায়েংনট বলেন, আমি প্রথমবারের মতো এই সম্মেলনে এসেছি। আসা করি রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক নেতারা আলোচনার মাধ্যমে এশিয়ার সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে মিয়ানমারের মান্ডেলিয়া রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জ মায়েংনট, হরাসিসের চেয়ারম্যান ফ্রাঙ্ক জুরজেন এবং আইসিসির প্রেসিডেন্ট গোয়েঙ্কা উপস্থিত ছিলেন। সোমবার সন্ধ্যায় শেষ হবে দুই দিনের এই বাণিজ্য সম্মেলন। গত বছর থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে প্রথমবারের মতো এই বাণিজ্যিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।


বিজনেস আওয়ার / অ.মা

উপরে