ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

Bijoy-month-businesshour24

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দলের থেকে ‘আগ্রাসী ক্রিকেট’ চান বিরাট

২০১৭ নভেম্বর ২৮ ০৯:৫৬:৫০

বিজনেস আওয়ার : নাগপুরে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়ে দলের জন্য বিরাট-মন্ত্র শুনিয়ে রাখলেন ক্যাপ্টেন কোহালি। আগ্রাসী ক্রিকেট। এই ‘আগ্রাসী ক্রিকেটই’ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দলের ক্রিকেটারদের কাছ থেকে চান বিরাট কোহালি।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে নিজেদের টেস্ট ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড সোমবার স্পর্শ করল ভারত। শ্রীলঙ্কাকে এক ইনিংস এবং ২৩৯ রানে হারিয়ে। এর আগে ঠিক একই ফলে ২০০৭ সালে মিরপুরে বাংলাদেশকে হারিয়েছিল ভারত। যে দলের অধিনায়ক ছিলেন রাহুল দ্রাবিড়। এত দিন এটাই ছিল টেস্ট ক্রিকেটে ভারতের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়। যা ছুঁয়ে ফেলল বিরাট কোহালির ভারত।

মুরলী বিজয়, চেতেশ্বর পূজারা, রোহিত শর্মার সেঞ্চুরি। আর.অশ্বিনের (৪-৬৩) তিনশো টেস্ট উইকেট। সব কিছুই ছিল এই টেস্টে। কিন্তু সব ছাপিয়ে বড় হয়ে থাকল কোহালির ডাবল সেঞ্চুরি। শুধু বড় স্কোরের জন্যই নয়, স্লো পিচে যে গতিতে ভারত অধিনায়ক রান তুলেছেন, সম্ভবত সেটা মাথায় রেখেই তাঁকে ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার বেছে নেওয়া হয়েছে। নিজের ইনিংস নিয়ে কোহালি বলছেন, ‘‘আমি যে ভাবে ব্যাট করি, সে ভাবেই ব্যাট করে গিয়েছি। দ্রুত স্ট্রাইক বদলে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রান করতে চেয়েছি। যাতে আমার বোলারদের কাছে সময় থাকে বিপক্ষকে আউট করার।’’ এর পরেই কোহালি যোগ করেছেন, ‘‘দক্ষিণ আফ্রিকায় আমাদের এই মানসিকতাটাই দেখাতে হবে। তাই সে রকম ভাবেই খেলার চেষ্টা করেছি।’’

কোহালি পরিষ্কার বলে দিচ্ছেন, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে আলাদা করে প্রস্তুতির সময় পাওয়া যাবে না বলে তাঁরা এই শ্রীলঙ্কা সিরিজটাই বিদেশ সফরের প্রস্তুতি হিসেবে দেখছেন। ‘‘আমাদের হাতে সময় নেই। তাই যা করার এই সিরিজেই করে নিতে হবে। নাগপুরের উইকেট দ্বিতীয় দিন থেকে খারাপ হতে থাকলেও ইডেনের উইকেটে পেসাররা সাহায্য পেয়েছিল,’’ বলেছেন কোহালি।

রোহিতের প্রত্যাবর্তন নিয়ে কোহালি বলেছেন, ‘‘রোহিত আমাদের পরিকল্পনায় আছে। আমাদের সামনে এখন অনেক টেস্ট রয়েছে।’’ পূজারা, বিজয়ের প্রশংসাও শোনা গিয়েছে বিরাটের মুখে।

বৃষ্টিতে ইডেনে দু’দিন নষ্ট হলেও বোলাররা একটা অবিশ্বাস্য জয় প্রায় এনে দিয়েছিলেন ভারতকে। এখানে সেই জয়টা এল খুব সহজে। দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কা থেমে গেল ১৬৬ রানে। অশ্বিন ছাড়াও উমেশ যাদব, ইশান্ত শর্মা এবং রবীন্দ্র জাডেজা দু’টো করে উইকেট পান। বোলারদের প্রশংসা করে বিরাট বলেছেন, ‘‘ভুবি গত কয়েক মাসে ভারতের হয়ে অনেক ক্রিকেট খেলেছে। ইশান্ত, শামি, উমেশ হয়তো দেশের হয়ে সে রকম খেলেনি, কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রচুর খেলছে। যেটা ছন্দ ধরে রাখার জন্য খুব প্রয়োজনীয়।’’ নাগপুরে স্পিনাররা ভাল বল করলেও ইশান্ত শর্মার প্রশংসা করেন অধিনায়ক।

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সিরিজে ভারত ১-০ এগিয়ে যাওয়ার পরে অভিনন্দন বার্তা আসছে নানা দিক থেকে। সচিন তেন্ডুলকর যেমন টুইট করেন, ‘টিম ইন্ডিয়ার ক্রিকেটারদের জন্য গর্ব হচ্ছে। বিরাট কোহালি, মুরলী বিজয়, রোহিত শর্মা দুর্দান্ত খেলল। অশ্বিন তিনশোটা উইকেট তুলে নিল। ওয়েল ডান।’ রোহিত নিজে বলেছেন, ‘‘পাঁচশো দিন পরে টেস্টে রান পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে হচ্ছে। কারণ গত বছর ঊরু-তে অস্ত্রোপচারের পর মনে হত আর হাঁটতে পারব কি না।’’ সঙ্গে জুড়ে দিচ্ছেন, ‘‘অতীত নিয়ে ভেবে নিজের উপরে চাপ বাড়াতে চাই না। বরং সামনে যে চ্যালেঞ্জগুলো আসতে চলেছে সেগুলো নিয়েই ভাবতে ভালবাসি। আপাত দিল্লির তৃতীয় টেস্ট ও তার পরে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজ নিয়ে ভাবছি। তা শেষ হলে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ নিয়ে ভাবতে বসব।’’

যে দিনটায় অশ্বিন রেকর্ড গড়লেন, এই একই দিনে, ১৯৮১ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তিনশোতম উইকেট পেয়েছিলেন ডেনিস লিলি। সেই ২৭ নভেম্বরই নিজের তিনশোতম উইকেট তুলে নিলেন ভারতীয় স্পিনার। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের পাঁচশোতম উইকেটও পেলেন অশ্বিন।

শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একমাত্র অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমাল কিছুটা লড়াই করার চেষ্টা করেন। প্রথম ইনিংসে ৫৭ করার পরে দ্বিতীয় ইনিংসে ৬১ রান করেন তিনি। বাকিরা সবাই ব্যর্থ হয়েছেন।

বিজনেস আওয়ার / অ.মা

উপরে