ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

আবার আসছে ১০ টাকা দরের চাল

আপডেট : 2018-07-12 10:24:34
আবার আসছে ১০ টাকা দরের চাল

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: আবারও হত দরিদ্রদের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। তালিকাভুক্ত ৫০ লাখ মানুষ পাবে এই সুবিধা। চলতি অর্থবছরে বিতরণ করা হবে সাড়ে সাত লাখ টন চাল। গত অর্থবছরে এই খাতে বরাদ্দ ছিল তিন লাখ টন চাল। আগামী সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর-এই তিন মাস চলবে এই কর্মসূচি।

প্রধানমন্ত্রীর পছন্দের কর্মসূচি হিসেবে ইউনিয়ন পর্যায়ে হতদরিদ্রদের জন্য ২০১৬ সালে 'খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি'র মাধ্যমে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি শুরু করে সরকার। চালুর পর মাত্র ২ প্রান্তিকে তালিকাভুক্ত ৫০ লাখ সুবিধাভোগীকে এই চাল দিতে পেরেছে খাদ্য বিভাগ।

গত বছর এপ্রিলে বন্যায় বোরো ফসলহানি এবং সরকারি খাদ্য গুদামে মজুদ কমে আসার পর দ্বিতীয় প্রান্তিকে আর ১০ টাকার চাল বিতরণ করা হয়নি।

এ বিষয়ে খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আরিফুর রহমান অপু জানান, আমরা খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি ফের চালু করছি। সার্বজনীন কর্মসূচির জন্য যদি বাজেট আরও লাগে সেটা আমরা চাহিদাপত্র দিয়ে বাড়াব।

নির্বাচনের বছরে হতদরিদ্রদের জন্য নানা প্রকল্পে চালের বরাদ্দ বাড়াচ্ছে সরকার। সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় প্রায় ২২ লাখ টন খাদ্যশস্য গরিবের মধ্যে বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

তবে খোলাবাজারে বিক্রি বা ওএমএসে বরাদ্দ কমছে। খাতে গত বছর এই খাতে লাখ ৬৫ হাজার টন চাল বরাদ্দ রাখা হলেও নির্বাচনী বছরে তা কমিয়ে এক লাখ ২০ হাজার টন রাখা হয়েছে।

খাদ্য বান্ধব কর্মসূচিতে বরাদ্দ বাড়ানোর পাশাপাশি বিতরণে অনিয়ম ঠেকাতেও বিশেষ দৃষ্টি থাকবে। প্রথম বছর প্রথম পর্বে সম্পদশালীদেরও এই তালিকায় নাম তোলা নিয়ে নানা সমালোচনা উঠে।

তবে ২০১৭ সালে সরকারি ভারে চাল সংকট দেখা দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন দৃশ্যত মুখ থুবড়ে পড়ে। তবে জাতীয় নির্বাচনের এই বছরে আবার চালু হয়েছে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি। মার্চ থেকে মে এই তিন মাস তালিকাভুক্তরা ১০ টাকায় চাল পেয়েছেন।

পাশাপাশি অনিয়মের কারণে দুই লাখ ১৮ হাজার ৮৬৫ জনের কার্ড, ১৩০টি ডিলারশিপ বাতিল করা হয়েছে। ৩৭ জন ডিলারের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করা হয়েছে।

এছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১০ লাখ ৪ হাজার ১৬৮ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। খাদ্য অধিদপ্তরের দুই জন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও দুই জন উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/১২জুলাই/এমএএস

পাঠকের মতামত: