বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ চলতি অর্থ বছরের জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) কর আহরণের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল তা থেকে ৩০ হাজার কোটি টাকা কমানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বৃহৎ করদাতা ইউনিটে (এলটিইউ) রাজস্ব হালখাতা ও বৈশাখী উৎসব উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ৪০ শতাংশ বেশি ধরা হয়েছিল। এটি অর্জন করা সম্ভব হবে না। এজন্য চলতি অর্থ বছরের সংশোধিত বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা আগের চেয়ে ২৫-৩০ হাজার কোটি টাকা কমবে।

রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ২ লাখ ৪৮ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। কিন্তু গত ৯ মাসে আদায় হয়েছে ১ লাখ ৪৪ হাজার ৩১১কোটি টাকা।

বাকি সময়ের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন করা সম্ভব কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, চলতি বছরের রাজস্ব আয়ের জন্য যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সেই লক্ষ্যমাত্রা আগের বছরের চেয়ে ৪০শতাংশ বেশি। এনবিআরের পক্ষে এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ সম্ভব হবে না।

তবে এই লক্ষ্যমাত্রা সংশোধন করে ২৫ থেকে ৩০ হাজারে কোটি টাকা কমানো হতে পারে। আর সেই লক্ষ্যমাত্রা আমরা পূরণ করতে পারবো। রাজস্ব হালখাতায় ৪০৩ কোটি ১৬ লাখ টাকার বকেয়া আয়কর আদায় হয়েছে। ভ্যাটের বাবদ আয় হয়েছে ৩০০ কোটি টাকা হতে পারে। আর কাস্টমসে তা ২০০ থেকে ৩০০ কোটি টাকা হবে।

মোশাররফ হোসেন বলেন, ভ্যাট আদায় এখনও প্রত্যাশার তুলনায় কম আছে। করের আওতা বাড়ানোর লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। উৎসে করের মনিটরিং আরও বেশি করে করবো। এলটিইউ ইউনিট হালখাতায় আয় হয়েছে ৬৫ কোটি টাকা। এই ইউনিটের অধিনে ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মোট কর দাতার সংখ্যা ১ হাজার ১৫৩টি।

বিজনেস আওয়ার / ১৬ এপ্রিল ২০১৮ / এমএএস