বিনোদন ডেস্ক: ভারতের নারী টেনিস তারকা করমন কউরের সঙ্গে ছবি তুলে এলাহি কাণ্ড বাঁধিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি। এমনকি তার বিরুদ্ধে নারীকে অসম্মানের অভিযোগও তুলেছেন অনেকে।

দিল্লীর নারী টেনিস তারকা করমনের সঙ্গে একটি ঘড়ি নির্মাণকারী সংস্থার প্রচারে উপস্থিত হন কোহলি। সেখানে তাকে ঘড়ি পরিয়ে দেন করমন। এরপর ছবি তোলার সময় টুল ব্যবহার করেছেন কোহলি। কারণ আর কিছু নয়, উচ্চতা।

করমনের উচ্চতা ৫ ফুট ১১ ইঞ্চি আর কোহলির ৫ ফুট ৯ ইঞ্চি। ছবি তোলার সময় দুজনের 'হাইট ম্যাচ' করাতে গিয়েই টুলের ওপর দাঁড়িয়ে যান কোহলি। এই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে।

নারীর সঙ্গে 'হাইট ম্যাচ' করাতে গিয়ে যে কাজ করেছেন তা কি কোনো পুরুষ ক্রীড়াবিদের ক্ষেত্রে করতেন ভারতীয় অধিনায়ক? এমন প্রশ্নে সরব টুইটার। অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন, নারীর চেয়ে খাটো দেখালে কি সমস্যা হতো তার?

টুইটারে একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত রেসলার গ্রেট কালির সঙ্গে কোহলির একটি ছবি পোস্ট করে একজন লিখেছেন, কই গ্রেট কালির সঙ্গে ছবি তোলার জন্য তো আপনি মই ব্যবহার করলেন না? তাহলে ২০ বছর বয়সী টেনিস তারকা করমনের সঙ্গে উচ্চতা সমান দেখাতে টুল ব্যবহার করতে হলো কেন?

আয়োজকদের অনুরোধেও যদি এমনটা করে থাকেন কোহলি, তারপরও তিনি কেন ভাবলেন না যে এতে অবচেতনভাবেই একজন নারীকে অসম্মান করছেন? আবার কেউ কেউ ভারতে নারীদের বৈষম্যের শিকার হওয়ার প্রসঙ্গ তুলে বলেছেন, ভারতে একজন নারী বিশ্বজয় করলেও পুরুষের সমান সম্মান পায় না।

তবে অনেকে আবার কোহলির পাশেও দাঁড়িয়েছেন। তাদের প্রশ্ন, একটা ছবিতেই কি নারীর সম্মান শেষ হয়ে যায়? তবে মানুষটা যদি ভারতের ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হন, তাহলে তা ভাবনার বিষয় বইকি!

উল্লেখ্য, দিল্লীর ২০ বছর বয়সী টেনিস তারকা করমন এই বয়সেই একাধিক টেনিস শিরোপা জিতেছেন। তাকে ভারতের আগামীর টেনিস সেনসেশন হিসেবেই ভাবা হচ্ছে।

বিজনেস আওয়ার/১১ অক্টোবর, ২০১৮/এমএএস