বিজনেস আওয়া ডেস্ক: ওষুধ খাচ্ছেন অসুখ সারানোর জন্য, কিন্তু সেই ওষুধই যদি আরো বড় সমস্যার তৈরি করে তখন কেমন হবে! বেশি ওষুধ কী ধরনের ভয়ঙ্কর বিপদ ডেকে আনছে আপনার শরীরে নতুন এক গবেষণায় উঠে এসেছে সেই চাঞ্চল্যকর তথ্য।

ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ প্রিভেনশন অ্যান্ড কন্ট্রোল (ইসিডিসি)-এর গবেষকরা এর নাম দিয়েছেন ‘সুপারবাগ’। এই সুপারবাগের আক্রমণে শুধুমাত্র ইউরোপীয় মহাদেশেই প্রায় ৩৩ হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন প্রতি বছর।

অতিরিক্ত অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার শরীরে তৈরি হচ্ছে অদ্ভুত এক অবস্থা। প্রায় ৭০ শতাংশ ব্যাকটেরিয়া মারতে আর অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ কাজ করছে না। অথচ ব্যাকটেরিয়া থেকে সংক্রমণ হলে তা সারাতেই দেওয়া হয় অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ।

সেই ব্যাকটেরিয়া থেকেই সংক্রমণ ছড়াচ্ছে মানব শরীরে। এই সংক্রমণকেই গবেষকরা বলছেন ‘সুপারবাগ’। যেটি ফ্লু, যক্ষা ও এইডসের মতো ভয়ানক সংক্রমণের সমান।

ল্যান্সেট ইনফেকশনস ডিজিজেস নামে একটি রিপোর্টে এই তথ্য প্রকাশ করেছে ইসিডিসি। এটি শুধু ইউরোপেই নয়। সারা বিশ্বের জন্যই একটি ভয়ানক বিপদ বলে মনে করছেন এই রিপোর্টের গবেষকরা।

অ্যান্টিবায়োটিক থেকে নিজেদের বাঁচিয়ে চলা ব্যাকটেরিয়া পাঁচ ধরনের সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে দাবি করেছেন গবেষকরা।

তিন চতুর্থাংশ রোগীই কোনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার সময়েই এই ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন। সেখানে যথেষ্ট ব্যবস্থা নিলে সংক্রমণ অনেকটাই কমানো যাবে বলে মনে করছেন গবেষকরা।

কোনো ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগ সারাতে এই অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধই শেষ ভরসা। সেই ওষুধই যদি কাজ না করে এবং সেই ব্যাকটেরিয়া থেকে নতুন সংক্রমণ হয়, তাহলে পরিস্থিতি তো ভয়ানক হবেই।

বিজনেস আওয়ার/০৮ নভেম্বর, ২০১৮/আরএইচ