মাকসুদের পেটে অস্ত্রোপচার করে পাকস্থলী থেকে ২৬৩টি মুদ্রা, এক ডজন শেভিং করার ব্লেড, প্রায় ৬ ইঞ্চি লম্বা মরচে ধরা লোহার টুকরো, চারটে বড় সূচ, কাচের টুকরো ও শতাধিক পেরেক পাওয়া গিয়েছে। পেরেকের আঘাত পাকস্থলীতে লেগে শরীরের ভিতরে প্রচণ্ড পরিমাণে রক্তক্ষরণ শুরু হওয়ায় ডাক্তাররা আর দেরি করেননি। চিকিৎসক দলের নেতৃত্বে ছিলেন ডা. প্রিয়াঙ্ক শর্মা।

তিনি বলেন, ‘পেটে ব্যাথা হচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন রোগী। পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর আমরা চমকে যাই। এই ব্যক্তিকে দেখে মনে হয়, তার মানসিক সমস্যা রয়েছে। কারণ কোনও সুস্থ মানুষ এমন কাজ করতে পারেন না।’

মাকসুদের পরিবার জানিয়েছে, হতাশায় ভুগছিলেন মাকসুদ। তার জেরেই প্রতিনিয়ত কয়েন খাওয়াটা তার অভ্যাসে পরিণত হয়।

যদিও এমন ঘটনা এই প্রথম ঘটেছে তা নয়। সম্প্রতি মধ্য প্রদেশেই এক মহিলার শরীরে অস্ত্রোপচার করে ১৫০ কেজি চুল বের করেছেন ডাক্তাররা। দিনকয়েক আগেই কলকাতাতেও এক ব্যক্তির পাকস্থলী থেকে বেরিয়েছিল ৬০০-রও বেশি পেরেক। সূত্র : এই সময়


বিজনেস আওয়ার / অ.মা