বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ এক সপ্তাহের ব্যবধানে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। ক্ষতির আশঙ্কায় আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। বেকার হয়ে পড়েছেন বন্দরের শ্রমিকরা।

ভারত পেঁয়াজের রফতানি মূল্য হঠাৎ বাড়িয়ে সাড়ে ৮শ' ডলার নির্ধারণ করায় এর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে দেশের বাজারে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের দর বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে।

সপ্তাহখানেক আগেও ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানিতে খরচ পড়তো কেজি প্রতি সর্বোচ্চ ৪০ টাকা। এখন, খরচ করতে হয় ৭০ টাকার ওপরে। আর খুচরা বাজারে সে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৯৫ থেকে ১শ' টাকা দরে। এতে, বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

যখন পেয়াজের দাম কম ছিলো। ভোমরা স্থলবন্দরে আগে দিনে একশ থেকে দেড়শ গাড়ি পেয়াজ ঢুকতো। এখন সেখানে ২০ থেকে ৩০ গাড়ি পেয়াজ ঢুকছে যার কারণে দামও অনেক বেশি। হঠাৎ দাম কমে যেতে পারে, এমন আশঙ্কায় পেঁয়াজ আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন পাইকাররা। এতে বেকার হয়ে পড়েছেন দেশের স্থলবন্দরের শ্রমিকরা।

ভোমরা বন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, এক সপ্তাহ আগে প্রতিদিন এ বন্দর দিয়ে ৬০ থেকে ৭০ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানি হলেও এখন সে সংখ্যা নেমে এসেছে অর্ধেকে।

ভোমরা স্থলবন্দর শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, 'তুলনামূলকভাবে পেয়াজের ট্রাকের সংখ্যা কমে গেছে। গতকাল (রোববার) ৩০ গাড়ি পেয়াজ এসেছে।'

গেল অক্টোবরে এ বন্দর দিয়ে ১৪শ' পণ্যবাহী ট্রাকে ২৮ হাজার ৫শ' মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।


বিজনেস আওয়ার / ২৮ নভেম্বর / এমএএস