ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিজদায় দোয়া করার নিয়ম

  • পোস্ট হয়েছে : ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুন ২০২০
  • 63

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক : নামাজের মধ্যে বান্দার সিজদা করাই হলো মহান আল্লাহ তায়ালার সবচেয়ে পছন্দনীয় হচ্ছে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘সাল্লু কামা রায়াইতুমুনি উ-সাল্লী।’
অর্থ: ‘তোমরা ঠিক সেইভাবে নামাজ পড় যেইভাবে আমাকে পড়তে দেখেছো। (বুখারি ও মুসলিম)।

সিজদায় দোয়া করার নিয়ম:

নবী করিম (সা.) বলেন, বান্দা যখন সিজদারত থাকে, তখন সে তার রবের সবচেয়ে নিকটবর্তী হয়। কাজেই তোমরা এ সময়ে বেশি বেশি দোয়া করবে। (সহিহ মুসলিম: ১/৩৫০)।

সিজদায় দোয়া করার জন্য প্রথমে অবশ্যই সিজদার তাসবিহ পড়ে নিতে হবে। সে হিসেবে সুবহানা রাব্বিয়াল আ’লা বা অন্য কোনো তাসবিহ (৩ বার) পড়ার পরই দোয়া শুরু করতে হবে, হোক সেটি ফরজ, সুন্নত বা নফল সালাত।

সিজদায় দুনিয়াবি দোয়া করা যাবে কিনা? এই ব্যাপারে হানাফি মাজহাবের বিভিন্ন গ্রন্থে এসেছে— মানুষের পারস্পরিক কথোপকথন বা যে বিষয়টি মানুষের কাছে চাইলে পাওয়া যাবে, সেটি সিজদায় আল্লাহর কাছে চাইলে নামাজ নষ্ট হয়ে যাবে। যেমন: ‘হে আল্লাহ! আমাকে ১ লক্ষ টাকা দাও!’

তবে, যে বিষয় গুলো মানুষের সাধ্যের মধ্যে নেই, সেগুলো মহান আল্লাহর কাছে সিজদায় চাওয়া যাবে। যেমন: ঋণমুক্তি, ভালো জীবনসঙ্গী, সচ্ছলতা, স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি ইত্যাদি। এগুলো কোনোটিই মানুষের হাতে নেই। এগুলো মহান আল্লাহই সর্বাধিক জানেন।

বিজনেস আওয়ার/১৫ জুন, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

সিজদায় দোয়া করার নিয়ম

পোস্ট হয়েছে : ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুন ২০২০

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক : নামাজের মধ্যে বান্দার সিজদা করাই হলো মহান আল্লাহ তায়ালার সবচেয়ে পছন্দনীয় হচ্ছে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘সাল্লু কামা রায়াইতুমুনি উ-সাল্লী।’
অর্থ: ‘তোমরা ঠিক সেইভাবে নামাজ পড় যেইভাবে আমাকে পড়তে দেখেছো। (বুখারি ও মুসলিম)।

সিজদায় দোয়া করার নিয়ম:

নবী করিম (সা.) বলেন, বান্দা যখন সিজদারত থাকে, তখন সে তার রবের সবচেয়ে নিকটবর্তী হয়। কাজেই তোমরা এ সময়ে বেশি বেশি দোয়া করবে। (সহিহ মুসলিম: ১/৩৫০)।

সিজদায় দোয়া করার জন্য প্রথমে অবশ্যই সিজদার তাসবিহ পড়ে নিতে হবে। সে হিসেবে সুবহানা রাব্বিয়াল আ’লা বা অন্য কোনো তাসবিহ (৩ বার) পড়ার পরই দোয়া শুরু করতে হবে, হোক সেটি ফরজ, সুন্নত বা নফল সালাত।

সিজদায় দুনিয়াবি দোয়া করা যাবে কিনা? এই ব্যাপারে হানাফি মাজহাবের বিভিন্ন গ্রন্থে এসেছে— মানুষের পারস্পরিক কথোপকথন বা যে বিষয়টি মানুষের কাছে চাইলে পাওয়া যাবে, সেটি সিজদায় আল্লাহর কাছে চাইলে নামাজ নষ্ট হয়ে যাবে। যেমন: ‘হে আল্লাহ! আমাকে ১ লক্ষ টাকা দাও!’

তবে, যে বিষয় গুলো মানুষের সাধ্যের মধ্যে নেই, সেগুলো মহান আল্লাহর কাছে সিজদায় চাওয়া যাবে। যেমন: ঋণমুক্তি, ভালো জীবনসঙ্গী, সচ্ছলতা, স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি ইত্যাদি। এগুলো কোনোটিই মানুষের হাতে নেই। এগুলো মহান আল্লাহই সর্বাধিক জানেন।

বিজনেস আওয়ার/১৫ জুন, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: