ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডেক্সামেথাসন সেবনে মৃত্যুও হতে পারে!

  • পোস্ট হয়েছে : ১১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুন ২০২০
  • 11

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তিদের জীবন বাঁচাতে সাহায্য করে সহজলভ্য ওষুধ ডেক্সামেথাসন। এমন তথ্য জানিয়েছেন ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞরা। তবে ওই বিশেষজ্ঞরাই সাবধান করে দিয়ে বলেছেন, চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এ ওষুধ সেবন করলে মৃত্যুও হতে পারে।

জানা গেছে, এর আগে ওষুধটি বাংলাদেশের চিকিৎসকরা ব্যবহার করে ফল পেয়েছেন। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় প্রণীত জাতীয় নির্দেশিকায় ওষুধটি ব্যবহারের কথাও বলা হয়েছে। কিন্তু এটি করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় মূল ওষুধ নয়। সাপ্লিমেন্ট হিসেবে রোগীকে দিলে উপকার পাওয়া যায়।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত ব্যক্তির উপসর্গ গুরুতর না হলে এই ওষুধ কোনো উপকারে আসে না। আবার ডোজের সামান্য হেরফের হলে কিংবা সঠিক ব্যক্তির ওপর প্রয়োগ না হলে এই ওষুধটিই মৃত্যুর কারণ হতে পারে। ওষুধটি শুধু হাসপাতালে থাকা করোনা সংক্রমিত রোগীদের ক্ষেত্রে চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার করা যাবে।

ব্রিটিশ গবেষক দলের প্রধান অধ্যাপক মার্টিন ল্যান্ড্রেই বলেন, যখন প্রযোজ্য হবে হাসপাতালের রোগীদের ওষুধটি দেওয়া উচিত। কিন্তু কোনোভাবেই চিকিৎসক ছাড়া সাধারণ মানুষের এটি কিনে বাড়িতে নেওয়া বা নিজে নিজে এই ওষুধ গ্রহণ করা কোনোভাবেই উচিত না, এর পরিণাম খুবই ভয়ংকর হতে পারে।

এ প্রসঙ্গে প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, এটা একটা স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ। এই ওষুধের অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় মানুষ ফুলে যায়, পুশিং সিনড্রম হয়, ডায়াবেটিস হতে পারে, প্রেসার হতে পারে, আলসার হতে পারে, হাড্ডি ক্ষয় হতে পারে, হার্টে সমস্যা হতে পারে, কিডনি প্রবলেম হতে পারে। এমনকি মৃত্যুও হতে পারে।

উল্লেখ্য, ১৯৬০ সালের শুরু থেকে রিউমাটয়েড আথ্রাইটিস এবং অ্যাজমার মতো বিভিন্ন রোগে গুরুতর পর্যায়ে ডেক্সামেথাসনব্যবহৃত হয়ে আসছে।

বিজনেস আওয়ার/১৭ জুন, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

ডেক্সামেথাসন সেবনে মৃত্যুও হতে পারে!

পোস্ট হয়েছে : ১১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুন ২০২০

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ ব্যক্তিদের জীবন বাঁচাতে সাহায্য করে সহজলভ্য ওষুধ ডেক্সামেথাসন। এমন তথ্য জানিয়েছেন ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞরা। তবে ওই বিশেষজ্ঞরাই সাবধান করে দিয়ে বলেছেন, চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এ ওষুধ সেবন করলে মৃত্যুও হতে পারে।

জানা গেছে, এর আগে ওষুধটি বাংলাদেশের চিকিৎসকরা ব্যবহার করে ফল পেয়েছেন। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় প্রণীত জাতীয় নির্দেশিকায় ওষুধটি ব্যবহারের কথাও বলা হয়েছে। কিন্তু এটি করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় মূল ওষুধ নয়। সাপ্লিমেন্ট হিসেবে রোগীকে দিলে উপকার পাওয়া যায়।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত ব্যক্তির উপসর্গ গুরুতর না হলে এই ওষুধ কোনো উপকারে আসে না। আবার ডোজের সামান্য হেরফের হলে কিংবা সঠিক ব্যক্তির ওপর প্রয়োগ না হলে এই ওষুধটিই মৃত্যুর কারণ হতে পারে। ওষুধটি শুধু হাসপাতালে থাকা করোনা সংক্রমিত রোগীদের ক্ষেত্রে চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার করা যাবে।

ব্রিটিশ গবেষক দলের প্রধান অধ্যাপক মার্টিন ল্যান্ড্রেই বলেন, যখন প্রযোজ্য হবে হাসপাতালের রোগীদের ওষুধটি দেওয়া উচিত। কিন্তু কোনোভাবেই চিকিৎসক ছাড়া সাধারণ মানুষের এটি কিনে বাড়িতে নেওয়া বা নিজে নিজে এই ওষুধ গ্রহণ করা কোনোভাবেই উচিত না, এর পরিণাম খুবই ভয়ংকর হতে পারে।

এ প্রসঙ্গে প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, এটা একটা স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ। এই ওষুধের অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় মানুষ ফুলে যায়, পুশিং সিনড্রম হয়, ডায়াবেটিস হতে পারে, প্রেসার হতে পারে, আলসার হতে পারে, হাড্ডি ক্ষয় হতে পারে, হার্টে সমস্যা হতে পারে, কিডনি প্রবলেম হতে পারে। এমনকি মৃত্যুও হতে পারে।

উল্লেখ্য, ১৯৬০ সালের শুরু থেকে রিউমাটয়েড আথ্রাইটিস এবং অ্যাজমার মতো বিভিন্ন রোগে গুরুতর পর্যায়ে ডেক্সামেথাসনব্যবহৃত হয়ে আসছে।

বিজনেস আওয়ার/১৭ জুন, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: