ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ৫ বৈশাখ ১৪২৬


এ আর রহমানের সঙ্গে ফ্রেমবন্দি হাবিব-তাহসান

২০১৯ ফেব্রুয়ারি ১১ ১২:৪৩:৩৬

বিনোদন ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে ৬১তম গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের সন্ধ্যাটি বাংলাদেশের দুই জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী হাবিব আর তাহসানের জন্য ছিল দারুণ অভিজ্ঞতার। কাইনেটিক মিউজিকের আমন্ত্রণে এই অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার সুযোগ পান তাঁরা।

দুই বছর আগে তাহসান আরও একবার এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন, তবে হাবিবের জন্য এবারই প্রথম। তাই তাহসানের চেয়ে হাবিবের অবাক হওয়ার পালা ছিল সবচেয়ে বেশি।

‘গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড দেখতে আসা সার্থক’। এমনই ক্যাপশনের একটি ছবি পোস্ট করেছেন দেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত পরিচালক ও কণ্ঠশিল্পী হাবিব। এমন ক্যাপশন দেয়ার অযৌক্তিক কারণ নেই কেননা উপমহাদেশের বর্তমান সময়ের অন্যতম মিউজিশিয়ানের সাথে সাক্ষাৎ তো আর যা-তা কথা হতে পারে না।

বরেণ্য এই ভারতীয় মিউজিশিয়ানকে কাছে পেয়ে নিজের মোবাইল ক্যামেরায় যুগল ছবি তুলতে মোটেও ভুল করেননি। তিনি আল্লাহ রাখা রহমান (এ আর রহমান)।

আর হ্যাঁ উপমহাদেশের অস্কারজয়ী সঙ্গীতজ্ঞর সঙ্গে ছবি তুলতে ভোলেননি তাহসান। নিজের ফেসবুকে সোমবার সকালে সেসব পোস্ট করে ভক্তদের জানালেন। দেখা গেল তাহসানও বেশ কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন।

এ আর রহমানের পুরো নাম আল্লাহ রাখা রহমান। তিনি একজন ভারতীয় তামিল যিনি ভারতের বলিউড ও কলিউড (তামিল চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি) এর জনপ্রিয় সঙ্গীত পরিচালক । তিনি প্রচুর হিন্দি এবং দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রে সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন। তাঁর পিতার নাম কে আর শেখর।

মুসলমান হিসেবে ধর্মান্তরিত হবার আগে এ আর রহমানের নাম ছিল এ এস দিলীপ কুমার। তাঁর কাজগুলো ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সাথে ইলেক্ট্রনিক মিউজিক এবং ওয়ার্ল্ড মিউজিক এবং পশ্চিমা অর্কেস্ট্রাল মিউজিকের সম্মিলনের জন্যে বিখ্যাত।

তাঁর পুরস্কার গুলো মধ্যে রয়েছে দুটি অস্কার, একটি 'বাফটা পুরস্কার', একটি গোল্ডেন গ্লোব, চারটি ন্যাশনাল ফিল্ম এওয়ার্ড এবং ১৩ টি ফিল্মফেয়ার এওয়ার্ড।

এ ব্যাপারে তাহসান বলেন, অনুষ্ঠানে আমাদের পাশের সারিতেই বসেছিলেন এ আর রহমান। অনুষ্ঠান থেকে বের হওয়ার পর লবিতে তাঁর সঙ্গে দেখা হয়। আমরা শুভেচ্ছা বিনিময় করেছি। তিনি বাংলাদেশের গানের ব্যাপারে জানেন। পরিচয় হওয়ার পর তিনি আমাদের ব্যাপারে বেশ আগ্রহ দেখালেন। আমাদের সঙ্গে সেলফি তুলেছেন।

তাহসান আরও বললেন, লস অ্যাঞ্জেলেসে এ আর রহমানের নিজস্ব স্টুডিও আছে। এটি খুব পরিচিত স্টুডিও। আমরা এই স্টুডিওতে যাওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছি। এ আর রহমানও রাজি হয়েছেন। আশা করছি, শিগগিরই আমরা সেখানে যাব।

বিজনেস আওয়ার/১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮/এমএএস

উপরে