ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬


‘আলোচনার মাধ্যমে ভালো কোম্পানিগুলোকে শেয়ারবাজারে আনতে হবে’

২০১৯ ফেব্রুয়ারি ১২ ১৬:৪৪:৫২

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারের স্বার্থে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে ভালো ভালো কোম্পানিকে তালিকাভুক্ত করতে হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাবেক চেয়ারম্যান এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম। এক্ষেত্রে ভালো কোম্পানিকে যোগ্যতা অনুযায়ি প্রিমিয়াম দিতেই হবে। এ নিয়ে সমালোচনার সুযোগ নেই।

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ফারস হোটেলে অনলাইন বিজনেস পোর্টাল বিজনেস আওয়ার টোয়েন্টিফোর ডটকম ও ডিএসই ব্রোকার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ডিবিএ) আয়োজিত ‘দীর্ঘমেয়াদী অর্থায়নে শেয়ারবাজারের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি এ কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন ডিবিএ’র সভাপতি শাকিল রিজভী।

মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, ২০১০ সালে সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সময় শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত করার মতো ২৬টি সরকারি কোম্পানি নির্বাচন করা হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত ১টি কোম্পানিকেও শেয়ারবাজারে আনা যায়নি। অথচ এক গবেষণায় দেখা গেছে, মালয়েশিয়ার শেয়ারবাজার ৪০ শতাংশ সরকারি কোম্পানির দখলে।

তিনি বলেন, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে যোগ্যতা অনুযায়ি অনেক কোম্পানির যথার্থ দর নির্ধারন হচ্ছে না। এটা দুঃখজনক। এমতাবস্থায় বিষয়টি নিয়ে বিএসইসির ভাবার দরকার আছে।

পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর তুলনায়ও বাংলাদেশের শেয়ারবাজার অনেক নিম্নমূখী ও পিছিয়ে রয়েছে বলে জানান বিএসইসির এই সাবেক চেয়ারম্যান। এই সমস্যা উত্তরনে বহুজাতিক ও সরকারিসহ বিভিন্ন কোম্পানিকে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত করতে হবে।

আরো পড়ুন...

**শর্ত পরিপালন হলেই দ্রুত আইপিও অনুমোদন

**অর্থ সংগ্রহে উদ্যোক্তারা শেয়ারবাজারের জন্য দীর্ঘ অপেক্ষা করবে না

**'শক্তিশালী শেয়ারবাজার গঠনে ভাল কোম্পানি আনতে হবে'

**'বাংলাদেশ ব্যাংকের শেয়ারবাজারবান্ধব আচরন জরুরী'

**শেয়ারবাজারকে মূলধনের প্রধান উৎস হিসেবে গড়ে তুলতে হবে’

**‘দীর্ঘমেয়াদী পুঁজি শেয়ারবাজার থেকে নেয়া উচিত’

মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, কর্পোরেট সুশাষন নীতিমালা গঠন করা হয়েছে। এছাড়া অনেক কাটখোর পুড়িয়ে ফিন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। যা কার্যকরের মাধ্যমে শেয়ারবাজারের সহায়ক হবে। এতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা বাড়বে। আর বিদেশী বিনিয়োগ বেড়েছে বলে যোগ করেন তিনি। যেটা কাঙ্খিত পর্যায় থাকলে, শেয়ারবাজারে গতি বৃদ্ধিতে সহায়ক হয়।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের শেয়ারবাজার সম্পূর্ণ শেয়ারভিত্তিক। কিন্তু শেয়ারবাজারের স্বার্থেই ভিন্নতার দরকার আছে। বিশেষ করে বন্ড মার্কেট চালু করা দরকার। এক্ষেত্রে সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বিএসইসির চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে বিএসইসির সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ সিদ্দিকী, প্যানেল আলোচক হিসেবে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স এসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সাবেক সভাপতি মো: ছায়েদুর রহমান ও ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি হাসান ঈমাম রুবেল উপস্থিত ছিলেন। আর অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিজনেস আওয়ার টোয়েন্টিফোর ডটকমের উপদেষ্টা ও ওমেরা অয়েলের সিইও আক্তার হোসেন সান্নামাত।

বিজনেস আওয়ার/১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯/আরএ

আরো পড়ুন...

**শর্ত পরিপালন হলেই দ্রুত আইপিও অনুমোদন

**অর্থ সংগ্রহে উদ্যোক্তারা শেয়ারবাজারের জন্য দীর্ঘ অপেক্ষা করবে না

**'শক্তিশালী শেয়ারবাজার গঠনে ভাল কোম্পানি আনতে হবে'

**'বাংলাদেশ ব্যাংকের শেয়ারবাজারবান্ধব আচরন জরুরী'

**শেয়ারবাজারকে মূলধনের প্রধান উৎস হিসেবে গড়ে তুলতে হবে’

**‘দীর্ঘমেয়াদী পুঁজি শেয়ারবাজার থেকে নেয়া উচিত’

উপরে