ঢাকা, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬


নুসরাতের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন

২০১৯ এপ্রিল ১৬ ১২:৩৯:১৮

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইউনিটি ও অনলাইন প্রেস ইউনিটি।

এ সময় রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যায় অভিযুক্ত মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলার কুশপুতুল দাহ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের সভাপতি জালাল আহমদ জনির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গাজী সাবের আহমদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আবু ইউসুফ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র কামরুল হাসান খান, সংগঠনের উপদেষ্টা এনায়েত উল্লাহ বাবু ও ব্যবসায়ী গাজী কামাল প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, একবিংশ শতাব্দীতে এরকম বর্বর হত্যাকাণ্ড জাহিলিয়াতের যুগকেও হার মানিয়েছে।নুসরাত হত্যাকারীরা যাতে কোনোভাবেই পার না পায়, তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি রাষ্ট্রকেই নিশ্চিত করতে হবে।

বক্তারা আরও বলেন, নুসরাতের ভাইকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাকরি দিয়েছেন, এজন্য আমরা তাকে ধন্যবাদ জানাই। কিন্তু এখানেই যাতে শেষ না হয়, নুসরাতের হত্যাকারীদের ফাঁসি রাষ্ট্র প্রধানকে নিশ্চিত করতে হবে। যদি অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত হয়, তাহলে খুন, ধর্ষণের জন্য আমাদের এখানে দাঁড়াতে হবে না।

মোহাম্মদ মাসুদের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অনলাইন প্রেস ইউনিটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী, যুগ্ম-মহাসচিব হাসিবুল হক পুনম, হরিদাস সরকার, সেভ দ্য রোডের ভাইস চেয়ারম্যান আকাশ আহমদ ও সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় আলিম পরীক্ষার কেন্দ্রে গেলে মাদরাসার ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে পালিয়ে যায় মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা। এর আগে মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে করা শ্লীলতাহানির মামলা প্রত্যাহারের জন্য নুসরাতকে চাপ দেয় তারা।

পরে আগুনে ঝলসে যাওয়া নুসরাতকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ এপ্রিল রাতে নুসরাত মারা যায়।

বিজনেস আওয়ার/১৬ এপ্রিল, ২০১৯/এ

উপরে