ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

নুসরাত হত্যা

অর্থ লেনদেনে বেশ কয়েকজন জড়িত

২০১৯ এপ্রিল ২০ ১১:৫৬:৫৯

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : ফেনীর মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডে অর্থ লেনদেনের বেশ কয়েকজনের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। শনিবার (২০ এপ্রিল) সকালে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানায় সংস্থাটি।

সম্প্রতি এ সংক্রান্ত সংবাদ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হলে বিষয়টি অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় সিআইডি। হত্যাকাণ্ড ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে কিংবা ঘটনা ধামাচাপা দিতে কোনো অবৈধ লেনদেন হয়েছে কিনা কিংবা কে বা কারা এসব লেনদেনের সঙ্গে জড়িত সেসব খুঁজে করতে কাজ শুরু করছে সংস্থাটি।

এ ব্যাপারে সিআইডির সিনিয়র সহকারী বিশেষ পুলিশ সুপার শারমিন জাহান এ তদন্ত শুরুর বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করে বলেন, নুসরাত হত্যায় অর্থ লেনদেনে বেশ কয়েকজন জড়িত আছেন। আমরা তদন্ত করছি। তদন্ত শেষে আমরা বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানাবো।

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্লা নজরুল বলেন, জানতে পেরেছি, এখানে অবৈধ অর্থ লেনদেন হয়েছে। এ সপ্তাহেই আমরা একটি টিম পাঠাব, ওখানে আমাদের টিম অনুসন্ধান করে দেখবে যে, মানিলন্ডারিং হয়েছে কি না। যদি হয়ে থাকে তাহলে আমরা নিয়মিত মামলা রুজু করব।

অবৈধ অর্থ, সেটা কেরোসিন কেনার জন্য হোক, কাউকে প্রভাবিত করার জন্য টাকা ইনভেস্ট করা হোক, বা কেউ যদি টাকা দিয়ে থাকে এই মৃত্যু অথবা শ্লীলতাহানির ক্ষেত্রে। এ হত্যাকাণ্ড প্রভাবিত করার জন্য, সাপ্রেস করার জন্য, অথবা খুন করার জন্য যদি টাকা ইনভেস্ট করে থাকে, সেটা মানিলন্ডারিং।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল সকালে নুসরাত আলিমের আরবি পরীক্ষা প্রথম পত্র দিতে গেলে মাদরাসায় দুর্বৃত্তরা গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় দগ্ধ নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৫ দিন পর ১০ এপ্রিল রাতে মারা যায়।

এ ঘটনায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাকে প্রধান আসামি করে আটজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো চার-পাঁচজনকে আসামি করে নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান ৮ এপ্রিল সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করে।

বিজনেস আওয়ার/২০ এপ্রিল, ২০১৯/এ

উপরে