করোনাভাইরাস লাইভ আপডেট
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
৫৬
২৬
সূত্র:আইইডিসিআর
বিশ্বজুড়ে
দেশ
আক্রান্ত
মৃত্যু
১৮০
৯৮১২২১
৫০২৩০
সূত্র: জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি ও অন্যান্য।

ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬


ব্যাংকের গড় লভ্যাংশ বেড়েছে ১.৩৭ শতাংশ

০৩:৩০পিএম, ০২ মে ২০১৯

রেজোয়ান আহমেদ : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর আগের বছরের তুলনায় ২০১৮ সালে লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমান বেড়েছে। এ বছরের ব্যবসায় তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের গড় লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমান বেড়েছে ১.৩৭ শতাংশ। মূলত ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ১২০ শতাংশ লভ্যাংশ বৃদ্ধিতে এমনটি হয়েছে। অন্যথায় এবারও গড় লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমাণ কমে যেতো।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

দেখা গেছে, ২০১৭ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৩০ ব্যাংকের গড় লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমান ছিল ১৫.০৩ শতাংশ। যা ২০১৮ সালের ব্যবসায় বেড়ে হয়েছে ১৬.৪০ শতাংশে। এক্ষেত্রে লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমান বেড়েছে ১.৩৭ শতাংশ।

এর আগে ২০১৬ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৩০ ব্যাংকের গড় লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমান ছিল ১৬.৮৭ শতাংশ। যা ২০১৭ সালের ব্যবসায় কমে আসে ১৫.০৩ শতাংশে। এক্ষেত্রে ২০১৭ সালে লভ্যাংশ ঘোষণার পরিমান কমেছিল ১.৮৪ শতাংশ।

২০১৮ সালের ব্যবসায় সবচেয়ে বেশি লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের পর্ষদ। এ ব্যাংকটির পর্ষদ আগের বছরের ৩০ শতাংশ নগদ থেকে বাড়িয়ে এবার ১৫০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ব্যাংকটির লভ্যাংশে এমন উত্থান না হলে, ২০১৮ সালে গড় লভ্যাংশ নেমে আসত ১২.৪০ শতাংশে।

দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ইষ্টার্ন ব্যাংকের পর্ষদ ৩০ শতাংশ (২০% নগদ ও ১০% বোনাস) লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এরপরে তৃতীয় স্থানে থাকা উত্তরা ব্যাংকের পর্ষদ ২২ শতাংশ (২০% নগদ ও ২ বোনাস) লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

ব্যাংক খাতে এবারও সবচেয়ে হতাশ করেছে এবি ব্যাংক। আগের বছরের ন্যায় ব্যাংকটির পর্ষদ এবারও শেয়ারহোল্ডারদের কোন লভ্যাংশ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর মাধ্যমে এবি ব্যাংক আইসিবি ইসলামীক ব্যাংকের পরে দ্বিতীয় ব্যাংক হিসাবে সর্বনিম্ন ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে থাকবে।

নিম্নে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর ২০১৮ ও ২০১৭ সালের ব্যবসার জন্য ঘোষিত লভ্যাংশের তথ্য তুলে ধরা হল-

ব্যাংকের নাম

২০১৮ সালের লভ্যাংশ

২০১৭ সালের লভ্যাংশ

ডাচ-বাংলা ব্যাংক

১৫০% বোনাস

৩০% নগদ

ইস্টার্ন ব্যাংক

২০% নগদ ও ১০% বোনাস

২০% নগদ

উত্তরা ব্যাংক

২০% নগদ ও ২% বোনাস

২০% নগদ

যমুনা ব্যাংক

২০% নগদ

২২% বোনাস

আল-আরাফাহ ব্যাংক

১৫% নগদ ও ২% বোনাস

১৫% নগদ ও ৫% বোনাস

প্রিমিয়ার ব্যাংক

১৫.৫০% বোনাস

১৫% বোনাস

ব্র্যাক ব্যাংক

১৫% বোনাস

২৫% বোনাস

মার্কেন্টাইল ব্যাংক

১৫% বোনাস

১৭% নগদ ও ৫% বোনাস

পূবালী ব্যাংক

১০% নগদ ও ৩% বোনাস

৫% নগদ ও ৫% বোনাস

প্রাইম ব্যাংক

১২.৫০% নগদ

৭% নগদ ও ১০% বোনাস

দি সিটি ব্যাংক

৬% নগদ ও ৫% বোনাস

১৯% নগদ ও ৫% বোনাস

মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক

১১% বোনাস

১২.৫০% বোনাস

ইসলামী ব্যাংক

১০% নগদ

১০% নগদ

এক্সিম ব্যাংক

১০% নগদ

১২.৫০% নগদ

এনসিসি ব্যাংক

৫% নগদ ও ৫% বোনাস

১৩% নগদ

ব্যাংক এশিয়া

৫% নগদ ও ৫% বোনাস

১২.৫০% বোনাস

ঢাকা ব্যাংক

৫% নগদ ও ৫% বোনাস

১২.৫০% বোনাস

রূপালি ব্যাংক

১০% বোনাস

২৪% বোনাস

ওয়ান ব্যাংক

১০% বোনাস

১৫% নগদ ও ৫% বোনাস

ন্যাশনাল ব্যাংক

১০% বোনাস

১২% বোনাস

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক

১০% বোনাস

১০% বোনাস

ট্রাস্ট ব্যাংক

১০% বোনাস

২০% নগদ

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক

১০% বোনাস

১০% বোনাস

আইএফআইসি ব্যাংক

১০% বোনাস

১২% বোনাস

সাউথইস্ট ব্যাংক

১০% বোনাস

১৫% বোনাস

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক

১০% বোনাস

১০% নগদ

ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক

১০% বোনাস

১০% বোনাস

স্যোশাল ইসলামী ব্যাংক

১০% বোনাস

১০% বোনাস

এবি ব্যাংক

০০০

০০০

আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক

০০০

০০০

গড় লভ্যাংশ

১৬.৪০%

১৫.০৩%

২০১৭ সালে ১৪টি ব্যাংকের পর্ষদ শুধুমাত্র বোনাস শেয়ার ঘোষণা করেছিল। তবে ২০১৮ সালের ব্যবসায় ১৬টি ব্যাংক বোনাস শেয়ার ঘোষণা করেছে। আর আগের বছরে শুধুমাত্র নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করা ৮টি ব্যাংকের সংখ্যা এবার ৪টিতে নেমে এসেছে।

দ্য ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্টস অব বাংলাদেশের (আইসিএমএবি) সাবেক সভাপতি দেওয়ান নুরুল ইসলাম বিজনেস আওয়ারকে বলেন, প্রকৃতপক্ষে বোনাস শেয়ারে শেয়ারহোল্ডারদের কোন বেনিফিট নেই এবং এটি কোন লভ্যাংশ না। যে কারনে বিনিয়োগকারীরা সাধারনত নগদ লভ্যাংশ প্রত্যাশা করে।

এদিকে ২০১৭ সালে ৬টি ব্যাংকের পর্ষদ উভয় (নগদ ও বোনাস) লভ্যাংশ ঘোষণা করেছিল। আর ২০১৮ সালের ব্যবসায় ৮টি ব্যাংক উভয় লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

বিজনেস আওয়ার/০২ মে, ২০১৮/আরএ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

মঙ্গলবার শেয়ারবাজারে ১৬ ব্যাংকের বিনিয়োগ
শেয়ারবাজারে ধীরে ধীরে ব্যাংকের বিনিয়োগ বাড়ছে

উপরে