ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬


ফেরদৌসের ভিসা বাতিলের কোনো যুক্তি নেইঃ মমতা

২০১৯ জুন ১২ ০০:১০:৫০

বিনোদন ডেস্কঃ ভারতের লোকসভা নির্বাচনের সময় নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে পড়েছিলেন বাংলাদেশি তারকা ফেরদৌস। এ ঘটনায় তাকে ‘কালো তালিকাভুক্ত’ করে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটি ছাড়ার নির্দেশ দেয়। অবশেষে ওই ঘটনার প্রায় দুই মাস পর এ বিষয়ে মুখ খুললেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

কলকাতায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ভোটের সময় বাংলাদেশ থেকে আমাদের একজন বন্ধু এসেছিলেন। তৃণমূলের মিছিল দেখে তিনি রাস্তায় দাঁড়িয়ে পড়েছিলেন। ব্যস, অমনি তার ভিসা ক্যানসেল করে দেয়া হলো। এটা কেমন কথা? তার ভিসা বাতিলের কোনো যুক্তি নেই।

রাজ্যের প্রশাসনিক ভবন নবান্নে আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলনে মমতা কারও নাম না-নিলেও ভিসা বাতিল করার
প্রসঙ্গ থেকে এটা স্পষ্ট যে তিনি ফেরদৌসের কথাই বুঝিয়েছেন।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, নির্বাচনের সময় তারা (বিজেপি) বাংলাদেশ থেকে কাদের নিয়ে এসেছিল, এই
রাজ্যে কী করিয়েছিল সেটা বরং আপনারা খোঁজ নিন। মনে রাখবেন (বাংলাদেশ থেকে) ইনফিলট্রেশন (অনুপ্রবেশ)
কিন্তু শুধু মাইনরিটিরা (মুসলিমরা) করে না, অন্যরাও করে। তাদের কারা ঢোকালো সেটাও আপনারা দেখুন।

ভারত সফরে গিয়ে গত ১৪ ও ১৫ এপ্রিল রায়গঞ্জের তৃণমূল প্রার্থী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালের হয়ে স্থানীয় চলচ্চিত্র
শিল্পীদের সঙ্গে নির্বাচনের প্রচারে গিয়েছিলেন ফেরদৌস। ওই মিছিলের ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। এ ঘটনার পর
ফেরদৌস দেশে ফিরে দুঃখ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছিলেন।

ওই সময় বিজেপি দাবি করে, বাংলাদেশের অভিনেতা ট্যুরিস্ট ভিসা নিয়ে এসে এভাবে ভোটে প্রচার করতে পারেন না।
এতে যেমন নির্বাচনী বিধিভঙ্গ হয়েছে, তেমনি ভিসার শর্তও লঙ্ঘন হয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/১২জুন,২০১৯/আরআই

উপরে