ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬


'এটাই অবসরের সেরা সময়'

২০১৯ জুলাই ২৭ ১২:১৩:৫৯

স্পোর্টস ডেস্ক : রাজকীয় বেশে বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় নিয়ে যখন তিনি মাঠ ছাড়ছেন তখন 'মালিঙ্গা' ধ্বনিতে ভেসে যাচ্ছে কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম। লঙ্কানরা তাদের প্রিয় ক্রিকেটারকে বিদায় জানিয়েছে সমস্ত ভালবাসা জড়ো করে।

মালিঙ্গাও তার বিদায়টা স্মরণীয় করে রাখলেন। প্রিয় সমর্থকদের এনে দিলেন দারুণ এক জয়, ভাসালেন আবেগে। বিদায়বেলাটা উইকেট নিয়ে শেষ করলেন লাসিথ মালিঙ্গা।

বয়স ৩৫ বছর। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। বুঝতে পেরেছিলেন বৃহত্তর স্বার্থে দল থেকে সরে দাঁড়ানোর। যাতে তরুণরা জায়গা পায়।

চামিন্দা ভাস ও তার মতো পেসাররা এসে যাতে ম্যাচ জেতায়, বিদায় লগ্নে তরুণদের উদ্দেশ্যে এমন আহ্বান ছিল মালিঙ্গার কণ্ঠে, পুরো ক্যারিয়ার জুড়ে আমি নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আমি আশা করি তরুণ বোলাররাও তা করবে।

অবসরে যাওয়ার সিদ্ধান্তটা আগে জানিয়েছিলেন মালিঙ্গা। বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলে জাতীয় দলের রঙিন জার্সিটা তুলে রাখলেন তিনি। বিদায় ম্যাচে সতীর্থরা তাকে উপহার দিয়েছে ৯১ রানের দারুণ এক জয়।

নিজেও বল হাতে আগুন ঝরিয়েছেন। যেন মনে করিয়ে দিলেন ফর্মের তুঙ্গে থাকার সময়গুলোকে। ৯.২ ওভার বল করে ২ মেইডেন ওভারে ৩৮ রান দিয়ে নিলেন ৩ উইকেট। বাংলাদেশের পতনের শুরু ও শেষটা হলো তার হাত দিয়ে।

বিদায় বেলায় মুহুর্মুহু করতালিতে ফেটে পড়া স্টেডিয়ামের দর্শকদের উদ্দেশ্যে মালিঙ্গা বলেন, শ্রীলঙ্কার হয়ে আমি ১৫ বছর খেলেছি। সত্যি আমি সম্মানিত এবং সত্যি আমি আনন্দিত যে দেশের এবং সমর্থকদের হয়ে খেলতে পারার জন্য।

আমি বুঝেছি, এটাই অবসরের সেরা সময়। কারণ ২০২৩ বিশ্বকাপের দিকে তাকাতে হবে। যার কারণে আমি উপলব্দি করেছি আমার সময় শেষ, আমাকে যেতে হবে।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে মালিঙ্গার অভিষেক ২০০৪ সালে। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে ২২৬ ম্যাচে ৩৩৮ উইকেট নিয়েছেন তিনি। শ্রীলঙ্কার হয়ে কেবল তারচেয়ে বেশি উইকেট পেয়েছেন মুত্তিয়া মুরালিধরন (৫৩৪) এবং চামিন্দা ভাস (৪০০)।

বিজনেস আওয়ার/২৭ জুলাই, ২০১৯/এ

উপরে