ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬


গত বছরের তুলনায় এবছর সঞ্চয়পত্র বিক্রি বেড়েছে

২০১৯ আগস্ট ২২ ১৬:৩৯:৫২

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : আগের বছরের চেয়ে এবছর প্রায় ১৫ শতাংশ সঞ্চয়পত্র বেশি বিক্রি হয়েছে। জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সব মিলিয়ে ৯০ হাজার ২৮০ কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে।

এর মধ্যে আগে বিক্রি হওয়া সঞ্চয়পত্রের মেয়াদ পূর্তির কারণে আসল এবং সুদ পরিশোধ করা হয়েছে ৪০ হাজার ৩৪১ কোটি টাকা। সে হিসাবে নিট বিক্রির পরিমাণ ৪৯ হাজার ৯৩৯ কোটি ৪৮ লাখ টাকা।

আগে বিক্রি হওয়া সঞ্চয়পত্রের সুদ-আসল পরিশোধের পর যা অবশিষ্ট থাকে, তাকে বলা হয় নিট বিক্রি। ওই অর্থ সরকারের কোষাগারে জমা থাকে এবং সরকার তা রাষ্ট্রীয় কর্মসূচি বাস্তবায়নে কাজে লাগায়।

বিনিময়ে সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকদের প্রতি মাসে সুদ দিতে হয়। এ কারণে অর্থনীতির পরিভাষায় সঞ্চয়পত্রের নিট বিক্রিকে সরকারের ‘ঋণ’ বা ‘ধার’ হিসেবে গণ্য করা হয়।

সঞ্চয়পত্রকে সরকার প্রতিবছরই বাজেটের ঘাটতি অর্থায়ন পূরণের অন্যতম উপায় হিসেবে বিবেচনা করে। গত অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র বিক্রি থেকে ২৬ হাজার ১৯৭ কোটি টাকা ঋণ নেয়ার লক্ষ্য থাকলেও বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় পরে তা বাড়িয়ে ৪৫ হাজার কোটি টাকা।

কিন্তু অর্থবছর শেষে দেখা যায়, সেই ধার প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকায় গিয়ে ঠেকেছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে সঞ্চয়পত্র থেকে ২৭ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেয়ার লক্ষ্য ধরেছে সরকার।

এবার সঞ্চয়পত্র থেকে ঋণের লক্ষ্য কম ধরা হয়েছে। তবে ব্যাংক থেকে ধার করার লক্ষ্যমাত্রা বেশ বাড়ানো হয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ব্যাংক খাত থেকে সরকারের ঋণের লক্ষ্য ধরা হয়েছিল ৪২ হাজার ২৯ কোটি টাকা।

বিজনেস আওয়ার/২২ আগস্ট, ২০১৯/এ

উপরে