ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬

২৪ ঘণ্টার মধ্যে পেঁয়াজের দাম কমবে

আশ্বাসের পরও কমেনি পেঁয়াজের দাম

২০১৯ সেপ্টেম্বর ১৮ ২১:৪৪:২৬

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদকঃ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পেঁয়াজের দাম কমে যাবে- সরকারের পক্ষ থেকে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করা হলেও, রাজধানীর বাজারগুলোতে পেঁয়াজের দাম কমেনি। গত কয়েক দিনের মতো এখনও চড়া দামেই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। বাজার ও মানভেদে দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৭০-৮০ টাকা এবং আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫-৭০ টাকা কেজি।

বুধবার রাজধানীর কারওয়ানবাজার, রামপুরা, মালিবাগ ও খিলগাঁও অঞ্চলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

ভারতীয় পেঁয়াজের আমদানি ব্যয় বেড়ে যাওয়ার অজুহাতে চলতি সপ্তাহের রোববার থেকে রাজধানীর বাজারগুলোতে পেঁয়াজের দাম এক লাফে প্রায় দ্বিগুণ হয়।

শুক্রবার বিভিন্ন বাজারে যে পেঁয়াজের কেজি ৫৫ টাকা ছিল, রোববার তা এক লাফে ৭৫-৮০ টাকা হয়ে যায়। গত কয়েক দিনের মতো আজ ভালো মানের দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭৫-৮০ টাকা কেজি। নিম্নমানের দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৬৫-৭০ টাকা। আমদানি করা দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬০-৬৫ টাকা কেজি।

পেঁয়াজের দাম না কমার কারণ হিসেবে রামপুরার ব্যবসায়ী সাইফুল বলেন, সচিব ঘোষণা দিলেই তো পেঁয়াজের দাম কমে যাবে না। আমরা কম দামে কিনতে না পারলে, কম দামে কীভাবে বিক্রি করবো। গত কয়েক দিনের মতো আজও পাইকারিতে পেঁয়াজের দাম বেশি। পাইকারিতে দাম কমলে, আমরাও কম দামে বিক্রি করব।

খিলগাঁওয়ের ব্যবসায়ী মোসাদ্দেক বলেন, খুচরা বিক্রেতাদের কাছে এখনও আগের কেনা পেঁয়াজ রয়েছে। তাছাড়া পাইকারিতেও পেঁয়াজের দাম কমেনি। যে কারণে আজও গত কয়েক দিনের দামে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

কামাল নামের এক ক্রেতা বলেন, ভারত পেঁয়াজের দাম এখন বাড়িয়েছে, কিন্তু বাজারে যে পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে তা তো আগেই আমদানি করা। তাহলে এই পেঁয়াজের দাম কেন বাড়বে? যারা মুনাফার লোভে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে, সরকারের উচিত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া।

বিজনেস আওয়ার/১৮ সেপ্টেম্বর,২০১৯/ আরএম

উপরে