sristymultimedia.com

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৭ কার্তিক ১৪২৬


বিএসসির মুনাফা ৫৫ কোটি টাকা হলেও শেয়ারহোল্ডাররা পাবে ১৫ কোটি

১১:০৪এএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৯

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের (বিএসসি) ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ব্যবসায় অর্জিত মুনাফার ২৮ শতাংশ শেয়ারহোল্ডারদের মাঝে লভ্যাংশ আকারে বিতরন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ। বাকি ৭২ শতাংশ কোম্পানির রিজার্ভে রাখতে চায়।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিএসসির ২০১৮-১৯ অর্থবছরে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৩.৬২ টাকা। আর এই মুনাফার বিপরীতে কোম্পানিটির পর্ষদ ১০ শতাংশ হারে প্রতিটি শেয়ারে ১ টাকা লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। যা মুনাফার ২৮ শতাংশ। আর বাকি ৭২ শতাংশ কোম্পানির রিজার্ভে যোগ হবে।

কোম্পানিটির ২০১৮-১৯ অর্থবছরে শেয়ারপ্রতি ৩.৬২ টাকা হিসেবে মোট ৫৫ কোটি ২২ লাখ টাকা মুনাফা হয়েছে। এরমধ্য থেকে ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ আকারে শেয়ারপ্রতি ১ টাকা হিসাবে শেয়ারহোল্ডারদের মাঝে ১৫ কোটি ২৫ লাখ টাকা বিতরন করা হবে। অর্থাৎ লভ্যাংশ প্রদান অনুপাত হবে ২৮ শতাংশ। মুনাফার বাকি ৩৯ কোটি ৯৭ লাখ টাকা রিজার্ভে যোগ হবে।

এদিকে বিএসসির শেষ প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন ১৯) ব্যবসায় ব্যাপক উত্থান হয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে বা ৩টি প্রান্তিকে (জুলাই ১৮- মার্চ ১৯) শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছিল ১.৭৬ টাকা। আর বছরের শেষ প্রান্তিকেই ইপিএস হয়েছে ১.৮৬ টাকা। যাতে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মোট ইপিএস হয়েছে ৩.৬২ টাকা। এক্ষেত্রে শেষ প্রান্তিকের অবদান ৫১ শতাংশ। আর বাকি ৪৯ শতাংশ এসেছে আগের ৩টি প্রান্তিকের সমন্বয়ে।

কোম্পানিটির ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৮) ইপিএস হয় ০.৩৭ টাকা। যা দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর ১৮) ০.৫৩ টাকা ও তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ ১৯) ০.৮৭ টাকা ইপিএস হয়। যাতে ৯ মাসে ইপিএস হয়েছিল ১.৭৬ টাকা।

১৫২ কোটি ৫৪ লাখ টাকা পরিশোধিত মূলধনের বিএসসিতে ২০০ কোটি ৪৭ লাখ টাকার রিজার্ভ রয়েছে।

উল্লেখ্য মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) লেনদেনে শেষে বিএসসির শেয়ার দর দাড়িঁয়েছে ৫২.৮০ টাকায়।

বিজনেস আওয়ার/১৬ অক্টোবর, ২০১৯/আরএ

উপরে