sristymultimedia.com

ঢাকা, সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬


কাল শেষ টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামবে বাংলাদেশ

১১:০৬এএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক : জয় দিয়ে ভারত মিশন শুরু করলেও ব্যাটিং ছন্দহীনতায় হারতে হয়েছে দ্বিতীয় ম্যাচে। ফলে, এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ নিশ্চিতের স্বপ্ন খোয়া গেছে টাইগারদের। তবে, সিরিজ জয়ের আশা এখনো ফুরিয়ে যায়নি।

সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে রোববার (১০ অভেম্বর) নাগপুরে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচ হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে বড় জয়ে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে রোহিতরা। তবে একেবারে ফুরিয়ে যায়নি মুশফিকরাও।

এর আগে দ্বিতীয় ম্যাচে দারুণ সূচনা করেও টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং ব্যর্থতায় তা ধরে রাখা যায়নি। যেখানে ১২ ওভারে শতকের ঘরে বাংলাদেশ, সেখানে পরবর্তী ৮ ওভারে এসেছে মাত্র ৫৫ রান।

ক্রিকেটে ছন্দে থাকার ওপর অনেক কিছুই নির্ভর করে। তা সে ব্যক্তিগতই হোক বা দলগত। ছন্দে থাকলে নিজের দিনে অনেক অঘটনই ঘটানো সম্ভব। তবে রাজকোটে সেই ছন্দই যেন দেখা যায়নি বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে।

ওপেনার লিটন দাস একাধিকবার সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি। ওয়ানডাউনে নামা সৌম্য সরকারের নিকট যে ঝমকালো ইনিংস আশা করেছিল টাইগার ভক্তরা, তার শিকি ভাগও এদিনে পূরণ করতে পারেননি তিনি।

নির্ভরতার প্রতীক মুশফিকুর রহিম বড় ইনিংসের ইঙ্গিত দিয়ে চাহালের বলে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন। ফলে, বড় স্কোরের পথে হোচট খায় বাংলাদেশ। ব্যাটিঙে কাঙ্খিত স্কোর গড়তে না পারার প্রভাব পড়ে বোলারদের ওপর।

জবাব দিতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখী হয়ে ওঠে ভারতীয় দুই ওপেনার। নবাগত বোলার আমিনুলের বলে শিখর ধাওয়ানের সাজঘরে ফিরলেও অধিনায়ক রোহিত শর্মার দানবীয় ব্যাটিয়ে ১৫ দশমিক ৪ ওভারেই জয়ের বন্দরের পৌঁছে যায় ভারত।

সিরিজে ১-১ এ সমতা ফেরায় টিম ইন্ডিয়া। তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে সিরিজ জয়ে বেশ আটঘাট বেধেই নামছে উভয় দল। গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে স্বাগতিক ভারত ও সফরত বাংলাদেশি শিবিরে আসতে পারে পরিবর্তন। বাংলাদেশ সময় সন্ধা সাড়ে ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

বিজনেস আওয়ার/০৯ নভেম্বর, ২০১৯/এ

উপরে