sristymultimedia.com

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬


কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনা, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৭

১০:৪৭এএম, ১২ নভেম্বর ২০১৯

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ও চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তুর্ণা নিশিতা ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১৭ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ৭৪জন।

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) জেলার কসবা উপজেলার মন্দভাগ স্টেশন এলাকায় রাত ৩টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেটের রেলযোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

কসবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ উল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশনে সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ও চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তুর্ণা নিশিতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। দুটি ট্রেনের কয়েকটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। এ ঘটনায় ১৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সর্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক তানহারুল ইসলাম বলেন, নিহত ১৭ জনের ভেতরে ৯ জনের মরদেহ স্পটে পাওয়া গেছে। এছাড়া তিনজন কসবা মেডিকেল হাসপাতালে, দুই জন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে এবং একজন কুমিল্লা মেডিকেল মারা যান।

তিনি আরও বলেন, আহত হয়েছেন ৭৪ জন। এদের মধ্যে ২৭ জন কসবা মেডিকেল হাসপাতালে, ৩৬ জন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে, ১১ জন কুমিল্লা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

কমলাপুর রেলওয়ের স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, এ দুর্ঘটনার পর ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং চট্টগ্রাম-সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে তূর্ণা নিশীথা ট্রেনটি সিগন্যাল অমান্য করে লাইনে ঢুকে উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে ধাক্কা দিয়েছে। তবে প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মিতু মরিয়মকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করে প্রত্যেক পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা করে দিয়ে মরদেহ বাড়িতে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হবে। পাশাপাশি আহতের চিকিৎসারও ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/১২ নভেম্বর, ২০১৯/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

তিন বিভাগে পেট্রলপাম্প ধর্মঘট
তেল বিক্রি বন্ধ, অচল হয়ে যেতে পারে সড়কপথ

উপরে