businesshour24.com

ঢাকা, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, ১৩ মাঘ ১৪২৬


মুম্বাই হামলার ১১ বছর আজ

০৯:২২এএম, ২৬ নভেম্বর ২০১৯


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আজ ভয়াল ২৬ নভেম্বর। ২০০৮ সালের এই দিনে ভারতের মুম্বাইয়ের হোটেল তাজসহ ১২টি জায়গায় লস্কর-ই-তৈয়্যেবার পরিকল্পিত হামলায় প্রাণ হারিয়েছিল দেড় শতাধিক নিরীহ মানুষ। পাকিস্তানি জঙ্গি আজমল কাসাভ সদলবলে ঝাঁপিয়ে পড়েন হোটেল তাজ ও মুম্বাইয়ের জনগণের ওপর।

টানা তিনদিন ধরে তাদের নির্বিচার গুলি ও বোমাবাজিতে প্রাণ হারান ১৫৬ জন নিরীহ মানুষ। সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীর যৌথ অভিযানে নিহত হয় ১০ হামলাকারীও। এ ঘটনায় আহত হন অন্তত ৬০০ জন। চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ অভিযানে ২৬ নভেম্বর শুরু হওয়া তাণ্ডব শেষ হয় ২৯ নভেম্বর।

এ ঘটনায় আটক হন একমাত্র জীবিত হামলাকারী আজমল কাসাভ। তাকে গণহত্যা, নির্যাতনসহ ৮৪টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করে ২০১০ সালের ৬ মে মৃত্যুদণ্ড দেয় দেশটির আদালত। ২০১২ সালের ২১ নভেম্বর পুনের ইয়ারদা কারাগারে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয় এ পাকিস্তানি জঙ্গির।

হামলার পর পেরিয়ে গেছে ১১টি বছর। ভয়াবহ সেই ঘটনার ক্ষত, সেই রক্ত, সেই শোক আজও মোছেনি ভারতীয়দের মন থেকে, সন্ত্রাসবিরোধী শান্তিপ্রিয় মানুষের মন থেকে। প্রতিবছর এ দিনটিতে গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় হতাহতদের স্মরণ করে বিশ্ববাসী। সবারই এক কথা, বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হোক, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ পদদলিত করে এগিয়ে যাক মানবতা।

প্রতি বছর ২৬ নভেম্বর হোটেল তাজ ও মুম্বাইয়ের অন্য জায়গাগুলোতে হামলায় নিহতদের শ্রদ্ধা জানাতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। চোখের জলে নিকটজনদের স্মরণ করেন নিহতদের স্বজনরা।

বিজনেস আওয়ার/২৬ নভেম্বর, ২০১৯/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে