businesshour24.com

ঢাকা, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬


জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করেছেন যারা

১০:৩২এএম, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক : 'জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার' হলো চলচ্চিত্রের একমাত্র রাষ্ট্রীয় ও সর্বোচ্চ পুরস্কার। চলচ্চিত্রের বয়স বহুদিন হলেও এটি দেওয়া হচ্ছে ১৯৭৫ সাল থেকে। কিন্তু বিভিন্ন কারণে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারটি প্রত্যাখ্যান করেছিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের কয়েকজন খ্যাতিমান অভিনয়শিল্পী।

এ বছর সেই তালিকায় যুক্ত হয়েছে মোশাররফ করিমের নাম। 'কৌতুক অভিনেতা' হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। কৌতুক অভিনেতা হিসেবে তার এই পুরস্কারপ্রাপ্তি নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। কিন্তু শেষমেশ মোশাররফ করিম এই পুরস্কার গ্রহণ করেননি।

এর আগে ১৯৭৫ সালে নায়ক ফারুকের মাধ্যমে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার গ্রহণ না করার প্রচলন শুরু হয়। 'লাঠিয়াল' ছবিতে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতার পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল তাকে। ১৯৭৭ সালে পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করেন শাবানা। 'জননী' ছবিতে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর জন্য নির্বাচন করা হয়েছিল তাকে।

১৯৮২ সালে 'বড় ভালো লোক ছিল' ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতার পুরস্কার পেলেও তা গ্রহণ করেননি সৈয়দ শামসুল হক। সুবর্ণা মুস্তাফা ১৯৮৩ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর জন্য পুরস্কার পেয়েছিলেন। 'নতুন বউ' ছবিতে অভিনয়ের জন্য তাকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সুবর্ণা সেটা গ্রহণ করেননি।

তাছাড়া ১৯৯০ সালে মেয়ে সুবর্ণা মুস্তাফার দেখানো পথে হেঁটেছিলেন তার বাবা খ্যাতিমান অভিনেতা গোলাম মুস্তফাও। সে বছর 'ছুটির ফাঁদে' ছবিতে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতার পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু পুরস্কারটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন এই গুণী অভিনেতা।

বিজনেস আওয়ার/১০ ডিসেম্বর, ২০১৯/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে