businesshour24.com

ঢাকা, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬


কে কী বলল, তাতে কিছু যায় আসে নাঃ শাকিব খান

০২:২০পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদকঃ ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান আগেই বলেছেন চমক থাকবে ‘বীর’ সিনেমায়। তার কথা মিলে গেল এবার। সিনেমাটির ফার্স্টলুকে ভিন্ন এক শাকিব খানকে দেখা গেল। গতকাল সকালে শাকিব খানের ফেসবুক অফিসিয়াল পেইজে প্রকাশ করা হয়েছে এ সিনেমার ফার্স্ট লুক। যেখানে দেখা গেছে মাথা ভর্তি চুল, মুখে ঘন দাড়ি, শরীরে রক্ত মাখা, গায়ে ময়লা শার্ট, তার উপর জ্যাকেট ও মাফলার, ডান কাঁধের উপর কয়লা কাটার বিশাল কুড়াল নিয়ে রাগী দৃষ্টিতে দাঁড়িয়ে আছেন শাকিব খান।

হিংস্র লুকের শাকিবের এই পোস্টার নিয়ে বেশ মেতেছেন নায়কের ভক্তরা। তবে ছবিটি নকল বলে অভিযোগও উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

বৃহস্পতিবার সকালে শাকিব খানের অফিসিয়াল পেজ থেকে পোস্টারটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উন্মুক্ত করা হয়েছে। তারপর থেকেই মিশ্র প্রতিক্রিয়ার মুখে পড়েছে এই পোস্টার। একদিকে চলছে শাকিবের নতুন লুকের প্রশংসা। অন্যদিকে আবারও নকল লুক ও স্টাইলে দেশীয় নায়ককে দেখে ক্ষেপেছেন ঢাকাই সিনেমার দর্শক। তারা দাবি করছেন, দক্ষিণ ভারতের সুপারহিট চলচ্চিত্র ‘কেজিএফ’-এর স্টাইল ও লুক নকল করে শাকিবের চরিত্রটি তৈরি করা হয়েছে। অন্তত পোস্টার সেই কথাই বলে। এ নিয়ে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন শাকিব খান।

‘বীর’ ছবির পোস্টারের সঙ্গে ভারতের দক্ষিণের ‘কে.জি.এফ.: চ্যাপটার ওয়ান’ ছবির পোস্টারের যথেষ্ট মিল রয়েছে।
এসব কোথা থেকে পায় সবাই? এমনটা হওয়ার কোনো কারণ নেই। ‘বীর’ ছবির গল্প একেবারেই মৌলিক। চমৎকার গল্প। ছবির পরিচালক কাজী হায়াত। তিনি যথেষ্ট অভিজ্ঞ। দীর্ঘদিন চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত আছেন। ‘বীর’ তাঁর ৫০তম চলচ্চিত্র। সংলাপগুলো অসাধারণ! আর এই ছবির জন্য আমি অনেকটা সময় নিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করেছি। একেবারে নতুন লুকে দর্শকদের মধ্যে নিজেকে আনতে চেয়েছি।

‘কে.জি.এফ.: চ্যাপটার ওয়ান’ ছবির ব্যাপারে আপনার কোনো ধারণা আছে?
দেখুন, ‘কে.জি.এফ.: চ্যাপটার ওয়ান’ একধরনের ছবি আর ‘বীর’ আরেক ধরনের ছবি। কিছু মানুষ আছে, যারা শুধু শুধু এসব খুঁজে বের করবে।

ফেসবুকে কিন্তু ব্যাপারটি নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে।
কে কী বলল, তাতে কিছু যায় আসে না। আমি কখনোই সেসবকে পাত্তা দিইনি। আমি নিজের কাজ করে গেছি।

ছবিতে ‘কে.জি.এফ.: চ্যাপটার ওয়ান’ আর ‘বীর’ ছবির কোনো মিল থাকার সম্ভাবনা আছে?
মোটেই না। আগেই বলেছি, দুটি দুই ধরনের ছবি। এই দুই ছবির মধ্যে কোনো মিল নেই। যাঁরা মৌলিক গল্পের ছবি দেখতে চান, শতভাগ দেশীয় ছবি দেখতে চান; তাঁদের জন্য আমার এই ছবি।

বিজনেস আওয়ার/১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯/আরআই

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে