করোনাভাইরাস লাইভ আপডেট
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
৫৪
২৬
সূত্র:আইইডিসিআর
বিশ্বজুড়ে
দেশ
আক্রান্ত
মৃত্যু
১৮০
৮৫৮৭৮৫
৪৪২০২
সূত্র: জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি ও অন্যান্য।

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬


সরকারি নির্দেশনা মানাতে কঠোর হবেন সেনাবাহিনী

০১:৩৭পিএম, ২৫ মার্চ ২০২০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনে চারটি প্রধান ক্যাম্প এবং ১৭টি সাব ক্যাম্পের মাধ্যমে ঢাকা জেলা প্রশাসনকে সহায়তা করতে মাঠে থাকবেন সেনাবাহিনী। সরকারি নির্দেশনা না মেনে ঘরের বাইরে যারা অযথা ঘোরাঘুরি করবেন এবং যারা হোম কোয়ারেনটাইন মানছেন না তাদের প্রতি কঠোর হবেন বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

বুধবার (২৫ মার্চ) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সেনাবাহিনী গতকাল থেকেই জেলা প্রশাসনের সঙ্গে কাজ শুরু করেছে। গতকাল ছিল মিটিং আর আজ মাঠে রয়েছে সৈন্যরা। তবে কোথায় কত প্লাটুন সেনা সদস্য রয়েছে তা বলতে পারছি না।

এদিকে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ঢাকায় সেনাবাহিনী নেমেছে। তবে এখনও সমন্বয়ের কাজটি চলছে। গতকাল সারাদিন মিটিং হয়েছে। আজও সকাল থেকেই মিটিং।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের নেতৃত্ব জেলা প্রশাসক, পুলিশ ও সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে করোনা প্রতিরোধে নানান দিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে চারটি ক্যাম্প ও ১৭টি সাব ক্যাম্পের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করবে সশস্ত্রবাহিনী।

জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ যাতে বাড়ির বাইরে যেতে না পারে এবং একসঙ্গে যাতে দুজন চলাফেরা না করে, এই নির্দেশনা মানাতে বুধবার সকাল থেকে মাঠে রয়েছে সশস্ত্রবাহিনী। শহরগুলোতে সার্বিক নির্দেশনা বাস্তবায়ন করবে সেনাবাহিনী।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না সাধারণ মানুষ। এখনও কারও মধ্যে তেমন সচেতনতা দেখা যাচ্ছে না। স্বাভাবিক দিনগুলোর মতোই সবাই রাস্তায় চলাচল করছে।

তাছাড়া বিদেশ ফেরত কেউই মানছে না হোম কোয়ারেনটাইন। ইচ্ছে মতো ঘোরাফেরা করছেন। এমন পরিস্থিতিতে সারাদেশে মাঠ পর্যায়ে সশস্ত্র বাহিনী নামানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

জানা যায়, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের পদক্ষেপগুলো শতভাগ সফল করতে কঠোর অবস্থান নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে আইসোলেশন এবং কোয়ারেনটাইন প্রতিষ্ঠিত করতে সশস্ত্রবাহিনী দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়া সাধারণ মানুষের গণজমায়েত বন্ধে বিভিন্ন জনসচেতনতা কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

বাজারে নিত্যপণ্য ও খাবার সরবরাহ নিশ্চিত করতে স্থানীয় প্রশাসকে সাহায্য করবে সেনাবাহিনী। বাজার, ওষুধের দোকান, মুদি দোকান, হোটেল ছাড়া সব কিছু বন্ধ থাকবে। বিনা প্রয়োজনে কেউ বাড়ির বাইরে বের হতে পারবে না। বের হলে অবশ্যই তাকে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হবে।

বিজনেস আওয়ার/২৫ মার্চ, ২০২০/এ

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

ব্যক্তি উদ্যোগে যুবলীগ নেতার সহযোগিতা
বেতনের টাকায় খাবার পৌঁছে দিচ্ছে পুলিশ

উপরে