businesshour24.com

ঢাকা, বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০, ৯ মাঘ ১৪২৬


প্রচারণায় জমে উঠেছে রসিক নির্বাচন

০৮:২০পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০১৭

বিজনেস আওয়ার ডেস্কঃ রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের বাকি আর মাত্র কয়েকদিন। নির্বাচনকে সামনে রেখে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন মেয়র প্রার্থীরা। ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন সব প্রার্থী। ভোটারদের কাছে নিত্য নতুন প্রতিশ্রুতি নিয়ে হাজির হন প্রার্থী ও তার সমর্থকরা।

বিএনপি প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা শহরের বাস টার্মিনাল, গণেশপুর এলাকায় প্রচারণা চালান। পরে দুপুরে জিলা স্কুল এলাকায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নানা প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। এসময় সরকার দলীয় প্রার্থী নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করছে বলেও দাবি করেন বাবলা। নির্বাচনে সকলের জন্য সমান সুযোগ নেই। আর নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হলেও জনগণ ভোটের মাধ্যমে আমাকে বিজয়ী করবে।

এরআগে রোববার সকালে শহরের নবাবগঞ্জ, হাড়িপট্টি এলাকায় প্রচারণা চালান আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু। এসময় তার বিরুদ্ধে করা আচরণবিধি লঙ্ঘন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ষড়যন্ত্রমূলকভাবে এধরণের অভিযোগ তার বিরুদ্ধে আনা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী শরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু বলেন, আমি ভোট করছি তারাও ভোট করছে। আমার যদি আচরণবিধি লঙ্ঘন করে থাকি; তারা সভা-সমাবেশ করে নির্বাচনী প্রচারণা করছে, সেটাও আচরণবিধি লঙ্ঘন।

প্রচারণায় গণমানুষের সম্পৃক্ততা দেখে নিজের জয়ের ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চয়তা দিলেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা। শহরের পায়রা চত্বর, শাপলা চত্বর ও জিলা স্কুল এলাকায় প্রচারণা চালান তিনি।

জাতীয় পার্টির মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা বলেন, আমরা চাই নির্বাচন কমিশন সকলের প্রতি সমান আচরণ করুক। নিরপেক্ষ ও সবার অংশগ্রহণে উৎসবমুখর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক।

এদিকে প্রার্থীরা পরস্পরের বিরুদ্ধে নানাবিধ অভিযোগ আনলেও, এখনো পরিস্থিতি স্বাভাবিকভাবে আছে বলে দাবি আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার। রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাস চন্দ্র সরকার বলেন, রসিক নির্বাচনে সকলের প্রার্থীদের সহযোগিতায় আশা করি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বিজনেস আওয়ার / ১০ ডিসেম্বর / এমএএস

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

উপরে