ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬


ভুল সময়ে খাওয়া যে খাবার স্বাস্থ্যহানি ঘটায় !

২০১৭ ডিসেম্বর ১১ ১৪:১৩:২৭

বিজনেস আওয়ার ডেস্কঃ সাধারণত যেসব খাবার আমরা প্রতিনিয়ত খেয়ে থাকি, তার অনেক খাবারই সময়মত খাওয়া হয়না। কারণ খাবার খাওয়ার নির্দিষ্ট কিছু সময়ও আছে। সে সময়ে খাবারটি না খেয়ে অন্য সময়ে খেলে অনেকসময় স্বাস্থ্যর ক্ষতিও হতে পারে।

এরকম সাতটি খাবারের নাম দেয়া হলো। যে খাবারগুলো সঠিক সময় খেলে অনেক উপকার রয়েছে। আবার সঠিক সময় খাবার না খেল সেই খাবারই স্বাস্থ্যর ক্ষতি করতে পারে। আসুন জেনে নেই, সেই ৭ খাবার সম্পর্কে।

দুধ: দুধ পুষ্টিকর সুষম খাবার বলতে আমরা মূলত দুধকে বুঝি। বিশেষজ্ঞদের মতে এই দুধ খাওয়ার সঠিক সময় হল রাত। রাতে দুধ পান করুন, এতে শরীর রিল্যাক্স হবে এবং কোষগুলো দুধের পুষ্টি ভালভাবে শুষে নিতে পারবে। তবে দুধ হজম হতে সময় বেশি লেগে থাকে, তাই সকালে দুধ পান থেকে বিরত থাকুন।

ভাত: পুষ্টিবিদ এবং ডায়েটিশিয়ানের মতে ভাত এবং ব্রেড জাতীয় খাবার রাতে না খাওয়াই ভাল। এটি পেট ভরিয়ে রেখে হজমে সমস্যা করে থাকে। রাতে ভাত ওজন বৃদ্ধি করে, হজমে দীর্ঘ সময় নিয়ে থাকে।

টকদই: আয়ুর্বেদ অনুসারে রাতে টকদই খাওয়া হলে, এটি শরীরে তাপ বৃদ্ধি করে দেয়। যা হজমের সমস্যা, বুক জ্বালাপোড়া সৃষ্টি করে থাকে। সেক্ষেত্রে টকদই দিনে খাওয়ায় ভালো।

কমলা: কমলার রস সকালের নাস্তায় অনেকেই কমলার রস পান করে থাকেন। এটি পান করার পারফেক্ট সময় হল সকালবেলা। এর ভিটামিন ডি এবং ফলিক অ্যাসিড সারাদিনের কাজের শক্তি দিয়ে মেটাবলিক বৃদ্ধি করে থাকে।

কলা: কলা সকাল অথবা বিকেলে খাওয়ার উপযুক্ত সময়। এটি প্রাকৃতিক অ্যান্টাসিড যা বুক জ্বালাপোড়া দূর করে দীর্ঘ সময় পেট ভরিয়ে রাখে। রাতে কলা খাওয়া অনেকেরই ঠান্ডার সমস্যা সৃষ্টি করে থাকে।

গ্রিন টি: গ্রিন টি ওজন হ্রাস করতে কিংবা স্বাস্থ্য রক্ষার্থে অনেকেই সবুজ চা বা গ্রিন টি পান করে থাকেন। দিনের যেকোন সময় এটি পান করা স্বাস্থ্যকর নয়।

সকালে এটি পান করা থেকে বিরত থাকুন, এতে থাকা ক্যাফিন ড্রিহাইড্রেশন এবং অ্যাসিডিটি সৃষ্টি করতে পারে। তাই বিকেল অথবা সন্ধ্যায় এটি পান করুন।

আপেল: আপেল সাধারণত সকাল সকাল খাওয়াই ভালো। বিকেল অথবা রাতে আপেল খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

বিজনেস আওয়ার / ১১ ডিসেম্বর / এমএএস

উপরে