ঢাকা, রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬


কাল থেকে চার দিনব্যাপী ‘শিশু চলচ্চিত্র উৎসব’

০৭:২৮পিএম, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭

বিজনেস আওয়ারঃ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে দেশজুড়ে শুরু হচ্ছে চার দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ শিশু চলচ্চিত্র উৎসব’। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে উৎসব উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

আজ বুধবার দুপুরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে এক সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। এখানে উৎসবের বিস্তারিত তুলে ধরেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী। তিনি জানান, বাংলাদেশ শিশু চলচ্চিত্র উৎসব উপলক্ষে সাত সদস্যবিশিষ্ট একটি সিলেকশন কমিটি গঠন করা হয়েছে। উৎসবে শিশুতোষ ও শিশু চলচ্চিত্র নির্মাতাদের চলচ্চিত্র বিভাগে প্রদর্শনীর জন্য ৪০টি চলচ্চিত্র মনোনীত করেছে কমিটির সদস্য চলচ্চিত্র নির্মাতা ও গবেষক সাজেদুল আউয়াল, চলচ্চিত্র সংগঠক মুনিরা মোরশেদ, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও সংগঠক তারেক আহমেদ, ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক বেলায়াত হোসেন, বাংলাদেশ প্রামাণ্যচিত্র পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ আহমেদ, চলচ্চিত্র নির্মাতা ফারহা জাবীন এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের সহকারী পরিচালক চাকলাদার মোস্তফা আল মাসউদ।

শিশুতোষ চলচ্চিত্র ও শিশু নির্মাতাদের চলচ্চিত্র—উভয় ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং বিশেষ জুরি পুরস্কার প্রদান করা হবে। পুরস্কার প্রদানের জন্য চলচ্চিত্র নির্মাতা সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকীকে চেয়ারম্যান করে সাত সদস্যবিশিষ্ট জুরি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন শিল্পী মুস্তাফা মানোয়ার, চলচ্চিত্র নির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও গবেষক ফরিদুর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক গীতি আরা নাসরিন, সহযোগী অধ্যাপক সাবরিনা সুলতানা চৌধুরী। কমিটির সদস্যসচিব বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক মো. বদরুল আনম ভুঁইয়া।

শিশুতোষ চলচ্চিত্র ও শিশু নির্মাতাদের চলচ্চিত্র উভয় ক্ষেত্রে পৃথকভাবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং বিশেষ জুরি পুরস্কার প্রদান করা হবে। শিশুতোষ চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে ক্রেস্ট ও সনদপত্রের পাশাপাশি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের পুরস্কারের অর্থমূল্য থাকবে ১ লাখ টাকা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা ৫০ হাজার টাকা ও বিশেষ জুরি পুরস্কার ২৫ হাজার টাকা এবং শিশু নির্মাতাদের চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের পুরস্কারের অর্থমূল্য থাকবে ৫০ হাজার টাকা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা ৩০ হাজার টাকা ও বিশেষ জুরি পুরস্কার ২০ হাজার টাকা। এ ছাড়া উৎসবের সমাপনী দিনে উৎসবে অংশগ্রহণ করা সব কটি চলচ্চিত্রের নির্মাতাদের সনদ দেওয়া হবে।

উৎসবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর পাশাপাশি ২৯ ও ৩০ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে ‘চলচ্চিত্র অনুধাবন’ শীর্ষক কর্মশালা। এ ছাড়া ২৯ ডিসেম্বর বিকেল চারটায় জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে চলচ্চিত্রবিষয়ক একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে, এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা ও গবেষক সাজেদুল আউয়াল এবং একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক মো. বদরুল আনম ভূঁইয়া প্রমুখ।

বিজনেস আওয়ার/ আর আই

এই বিভাগের অন্যান্য খবর

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে বিশেষ নাটক
নিশোর ১২ নাটকে ৮টিতেই মেহজাবিন!

উপরে